নিজস্ব প্রতিবেদক, কলকাতা: শনিবার দীর্ঘ জল্পনার শেষে বর্ধমানের একদা সিপিএমের দোর্দণ্ডপ্রতাপ নেতা আইনুল হক যোগ দিলেন বিজেপিতে। শনিবার কলকাতায় অনুষ্ঠিত বিজেপির কেন্দ্রীয় স্তরের নেতৃত্বদের নিয়ে আয়োজিত বৈঠকেই আনুষ্ঠানিকভাবে মুকুল রায়ের হাত ধরে আত্মপ্রকাশ ঘটালেন আইনুল হক। যদিও বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, আইনুল বেশ কয়েকমাস আগেই বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। কিন্তু আনুষ্ঠানিকভাবে শনিবার কলকাতার কেন্দ্রীয় নেতৃত্বদের উপস্থিতিতে ঘোষণা করা হল।

এদিন আইনুল জানিয়েছেন, সিপিএম নিয়ে তিনি কোনো কথা বলতে চান না। সিপিএমের আর কোনো অস্তিত্ব নেই। মানুষ আর সিপিএম নামটাই শুনতে চাইছে না। জানিয়েছেন, দীর্ঘ ৪৩ বছর তিনি রাজনীতি করেছেন। রাজনীতির মানুষ তিনি। এই আড়াই বছর ধরে তিনি নানান আলাপ আলোচনা চালিয়েছেন। তারপরই তাঁর অনুমান, ‘বিজেপিই একমাত্র দেশের উন্নয়ন ঘটাতে পারে’। উল্লেখ্য, বর্ধমান শহরে বামপন্থী ছাত্র রাজনীতি থেকে যুব এবং শেষে সিপিএমের জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য হন আইনুল। ছিলেন বর্ধমান পুরসভার উপ পুরপতি থেকে পুরপতিও। দক্ষ প্রশাসক হিসাবে নামও কুড়িয়েছিলেন। বামেদের বর্ধমান শহরের মুখ ছিলেন এই আইনুল হক। ২০১৬ সালের বিধানসভা ভোটে বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রে সিপিএমের প্রার্থী হিসাবে লড়াই করে তৃণমূলের রবিরঞ্জন চট্টোপাধ্যায়ের কাছে বড় ব্যবধানে হেরে যান। এরপরই দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে এবং শাসকদলের সঙ্গে তাঁর গোপন যোগাযোগের অভিযোগ তুলে তাঁকে সিপিএম থেকে বহিষ্কার করা হয়।

সূত্রের খবর, লোকসভার ভোটের পরই বর্ধমানে পুরসভার ভোট। আর সেই পুরভোটের চেয়ারম্যান হিসাবে বিজেপি আইনুল হককে সামনে তুলে আনতে পারে। আর সেই লক্ষ্য নিয়েই এবার বাম ও তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বিজেপির মুখ হতে চলেছেন আইনুল হক। যদিও আইনুল হকের এই বিজেপিতে যোগ দেওয়া নিয়ে খোদ সিপিএমের জেলা সম্পাদক অচিন্ত মল্লিক জানান, নো কমেন্টস। এব্যাপারে তিনি কিছুই বলবেন না। তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সাধারণ সম্পাদক উত্তম সেনগুপ্ত বলেন, আইনুল হক বর্ধমানের মানুষের কাছে ব্রাত্য। তাই তাঁর দলবদলে কোনো প্রভাবই পড়বে না রাজনীতির ময়দানে। বিজেপির জেলা যুব মোর্চার সভাপতি শ্যামল রায়ের দাবি, আইনুল হক বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় তাঁর যোগ্য রাজনীতি বোধকে কাজে লাগিয়ে একসঙ্গে দলীয় নির্দেশ মেনে কাজ করবেন তাঁরা। এদিন তাঁর সঙ্গে যোগ দিয়েছেন বর্ধমানের আইনুল ঘনিষ্ট নেতা বিশ্বজিৎ সেন সহ বেশ কয়েকজনও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here