এনআরসি হলে উত্তরাখণ্ডের যোগীকেই উত্তরপ্রদেশ ছাড়তে হবে: অখিলেশ

0
694
akhilesh kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: এখন দেশের অন্যতম আলোচ্য বিষয় নাগরিকপঞ্জি বা এনআরসি৷ অসমে শুরু হয়েছে৷ এরপর তা ছড়িয়ে যাবে দেশজুড়ে৷ এমনটাই হুমকি মোদী সরকারের৷ নাগরিকপঞ্জি নিয়ে এবার বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হলেন উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মু্খ্যমন্ত্রী তথা সমাজবাদী পার্টির শীর্ষ নেতা অখিলেশ যাদব। মুলায়ম পুত্র অখিলেশ সরাসরি নিশানা করলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে। উত্তরপ্রদেশে এনআরসি হলে বাদ পড়বেন খোদ মুখ্যমন্ত্রীই! যোগী উত্তরাখণ্ডের মানুষ, এনআরসি হলে উত্তরপ্রদেশ ছাড়তে হবে তাঁকে৷ নাগরিকপঞ্জির বিরুদ্ধে সরব হয়ে এই মন্তব্যই করেছেন এসপি সাংসদ। উল্লেখ্য নাগরিক পঞ্জি মানে অনুপ্রবেশকারীদের চিহ্নিত করে তাদের দেশ থেকে বিতাড়ন৷ দেশের অন্য অঞ্চলের মানুষদের তাড়ানো নয়৷এখানেই শেষ নয়, আরও একধাপ এগিয়ে অখিলেশের সাফ অভিযোগ, সরকার এনআরসি-র কথা বলে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি করতে চাইছে। তিনি বলেন, ‘ভয় দেখানো রাজনীতির হাতিয়ার এই এনআরসি। আগে বিজেপি বিভাজনের রাজনীতি করত, এখন মানুষকে ভয়ও দেখাচ্ছে।’

কাশ্মীরের পরিস্থিতি প্রসঙ্গে অখিলেশ যাদব একহাত নিলেন বিজেপিকে৷ তাঁর সোজা প্রশ্ন, ‘সরকার বলছে কাশ্মীরে সব শান্ত আছে। যদি তাই হয়, তাহলে কেন এত ‘রাখ ঢাক, গুড় গুড়’?’ ভারতীয় জনতা পার্টির কাছে তিনি জানতে চান, কাশ্মীর শান্ত হলে কেন ফারুক, ওমর, মেহবুবাদের মুক্তি দিচ্ছে না সরকার? পাকিস্তান ভারতের সবচেয়ে বড় শত্রু নয়৷ চিনই ভারতের প্রধান দুশমন৷ বরাবর সমাজবাদী পার্টি(সপা) এটা বিশ্বাস করে৷ স্বাভাবিকভাবে অখিলেশও এই তত্ত্বে ঘোর বিশ্বাসী৷ তাই তিনি মনে করেন , ‘বিজেপি পাকিস্তানের নামে ভোট চাইছে। এদিকে প্রধানমন্ত্রীকে পাকিস্তানের আকাশসীমাই ব্যবহার করতে দেওয়া হচ্ছে না। চিন পাকিস্তানের থেকেও ভয়ানক হবে। আর সেকারণেই সীমান্তে নিরাপত্তা আরও জোরদার করা উচিত।’ স্পষ্ট কথা অখিলেশের৷

একইসঙ্গে আজম খানের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া অভিযোগ নিয়েও আরও ফের সরব হয়েছেন অখিলেশ। কেন বিগত ৯ বছর ধরে কোনও অভিযোগ দায়ের হল না, প্রশ্ন এসপি নেতার। উত্তরপ্রদেশের আড়াই বছর সরকার চালানোর পরও কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি। তাহলে এখন কী উদ্দেশে রামপুরের এসপি সাংসদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হল? ‘বিষয়টিকে তিনি রাজনৈতিক প্রতিহিংসা হিসাবেই দেখছেন৷ উল্লেখ্য রামপুরের এই সপা সাংসদের বিরুদ্ধে জোর করে জমি অধিগ্রহণের মামলা দায়ের করা হয়েছে৷ এই বিষয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here