ডেস্ক: পিসি বড্ড বেশি একগুঁয়ে, অগত্যা তাই ভাইপোকেই স্বীকার করতে হবে ত্যাগ। কারণ স্বার্থ একটাই, নরেন্দ্র মোদীর অশ্বমেধের ঘোড়া প্রথমে উত্তর প্রদেশে আটকাতে হবে যে। তাহলেই, ‘আধা খেল খতম’।

দরকার হলে আসন ছেড়ে দিয়ে সমঝোতা করবেন, কিন্তু মায়াবতীর হাত ছাড়বেন না অখিলেশ যাদব। গতকাল উত্তর প্রদেশের মেনপুরিতে একটি জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে আগামী লোকসভা নির্বাচনে তাঁর তথা সমাজবাদী পার্টির রণনীতি সাফ জানিয়ে দিলেন অখিলেশ। তিনি বলেন, জোটের স্বার্থে যে কোনও ত্যাগ স্বীকারে আমি রাজি। জোট বজায় রাখতে যদি ২-৪টি কম আসনে আমায় লড়তে হয় তাও স্বীকার করে নেব।

অখিলেশের এই মন্তব্যকে একপ্রকার মায়াবতীর জয় হিসাবেই দেখছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। কারণ সদ্য সমাপ্ত কৈরানা উপনির্বাচনের আগেই মায়াবতী হুমকি দিয়েছিলেন, সম্মানজনক আসন না পেলে একাই লড়বেন তিনি। সপা-বসপার এই জোটে মায়াবতী যে নিজের ক্ষমতা জাহির করতে চাইছেন তখনই সাফ হয়ে যায়। কিন্তু অখিলেশ তাঁকে সেই জায়গা দেবেন কিনা সেই নিয়েই জল্পনা ছিল এই কয়েকদিন। কিন্তু গতকাল অখিলেশের মন্তব্যে কার্যত এ কথা দিনের আলোর মতো সাফ হয়ে যায় যে, পিসিকেই নিজের ক্যাপটেন হিসাবে মেনে নিয়েছেন ভাইপো।

২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের খতিয়ান দেখলে সাফ হয়ে যায় মায়াবতীর বসপার তুলনায় অখিলেশের সপা অনেকটাই এগিয়ে ছিল। উত্তর প্রদেশের ৮০টি লোকসভা আসনের মধ্যে ৫টি পেয়েছিল সপা। অন্যদিকে, একটিও আসন পেতে পারেনি মায়ার বসপা। তখন জোটও ছিল না এই দুই দলের মধ্যে। কিন্তু মাসকয়েক আগে ফুলপুর, গোরক্ষপুর এবং সম্প্রতি কৈরানায় জোট ফর্মুলা কাজ করেছে। তাই কোন প্রকারেই জোট ছাড়তে রাজি নন অখিলেশ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here