gandhis bengali news

Highlights

  • পঞ্জাবের মতো অন্য কংগ্রেসি রাজ্যে সিএএ বিরোধী প্রস্তাবনা পাশ হবে বিধানসভায়
  • এনপিআর জাতীয় নাগরিকপঞ্জিকরণের প্রথম ধাপ বলছে কংগ্রেস
  • রাজ্য সহ়যোগিতা না করলে এইসব কোনও কিছু চালু হবে না, ইয়েচুরি

মহানগর ওয়েবডেস্ক:  বাম শাসিত কেরলের পথে এবার কংগ্রেস শাসিত রাজ্যগুলি চলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ ইতিমধ্যেই তা কার্যকর করেছে কংগ্রেস শাসিত পঞ্জাব৷ ২৪ জানুয়ারি একই পথে যাচ্ছে সোনিয়ার দল শাসিত রাজস্থান৷ বিষয়টা কি?

কেরল দেশের প্রথম রাজ্য হিসাবে বিধানসভায় নাগরিকত্ব সংশোধন আইন(সিএএ)র বিরোধিতায় প্রস্তাবনা পাশ করেছিল৷ এরপর একই কাজ করে পঞ্জাব৷ তালিকায় আছে পুদ্দুচেরি, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড়, ঝাড়খণ্ড৷ তাছাড়া মহারাষ্ট্রে শাসক জোটে আছে কংগ্রেস৷ সেখানেও এর বিরোধিতায় প্রস্তবনা পাশের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন কংগ্রেস নেতা তথা রাজ্যমন্ত্রী অশোক চবন৷ কংগ্রেস রাজ্যসভার সাংসদ আহমেদ প্যাটেলের দাবি, এক এক করে সব কংগ্রেস শাসিত রাজ্য সিএএ বিরোধী প্রস্তাবনা উত্থাপন করবে৷

কংগ্রেসের বক্তব্য তাদের সময়কার এনপিআর বা জাতীয় জনগণনা পঞ্জির সঙ্গে মোদী সরকাররে এই কাজের আকাশ পাতাল পার্থক্য আছে৷ কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরযেওয়ালার সাফ কথা, এনপিআর এনআরসির প্রথম ধাপ৷ তাই এর বিরোধিতায় নেমেছে কংগ্রেস৷ অন্যদিকে হরিয়ানার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ভুপিন্দর সিং হুডা, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী কপিল সিব্বল ও প্রাক্তন কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রী সলমন খুরশিদ মনে করেন একবার আইন হয়ে যাওয়ার পরে সিএএ বিরোধিতা করে কোনও লাভ হবে না৷ তাঁদের মতে, দেশজুড়ে সিএএ চালু হবেই৷ চিদাম্বরমরা যেখানে সিএএ, এনপিআর, এনআরসি নিয়ে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধীদের ঐক্যর জন্য গলা ফাটাচ্ছেন সেখানে তাঁর দলের  কয়েকজন নেতা উল্টো কথা বলছেন৷

নয়া নাগরিকত্ব আইনের পাশপাশি দেশজুড়ে কংগ্রেস জাতীয় জনগণনা পঞ্জি, জাতীয় নাগরিকপঞ্জিকরণ নিয়ে  মোদী সরকারের বিরোধিতা প্রথম থেকেই করছে কংগ্রেস৷ কংগ্রেস ছাড়া বাম ও তৃণমূল একইভাবে বিরোধিতার পথে গিয়েছে৷ বাংলায় শাসক তৃণমূল৷ বিরোধী দল হিসাবে আছে কংগ্রেস ও বাম৷ তবে এই বিষয়ে বাংলার শাসক ও বিরোধীদল(বিজেপি বাদে) এক হয়ে গিয়েছে৷ সিপিএম সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরির কথায়, সিএএ, এনআরসি ও এনপিআর নিয়ে রাজ্যগুলির সহযোগিতা না পেলে কেন্দ্র এর কোনওটাই চালু করতে পারবে না৷ স্থানীয়দের সাহায্য না পেলে এই সমীক্ষা সংক্রান্ত কাজ করা যাবে না বলে মনে করেন সিপিএম-এর সর্বভারতীয় সম্পাদক৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here