ডেস্ক: সুইসব্যাঙ্কের রিপোর্ট অনুযায়ী নোটবন্দির ঠিক পর থেকে আজ পর্যন্ত সুইৎজারল্যান্ডের ব্যাঙ্কগুলিতে বেড়েছে ৫০ শতাংশ ভারতীয় টাকা। এই রিপোর্ট প্রকাশ হওয়ার পর মোদী সরকারকে রীতিমতো তুলোধনা করেছে বিরোধী দলগুলি। মুখ রক্ষার্থে শুক্রবারই সরকারের হয়ে বিবৃতি দিয়েছেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। এবার সুইস ইস্যুতে সরকারের হয়ে ব্যাট ধরলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুন জেটলি।

সাংবাদিকদের মুখোমুখি না হলেও শুক্রবার রাতে নিজের ব্লগে অর্থমন্ত্রীর দাবি, ‘সুইস ব্যাঙ্কে ভারতীয় টাকা ৫০ শতাংশ বেড়েছে ঠিকই তবে সেই টাকা সবটাই কালো টাকা নয়।’ জেটলির কথায়, ‘ভারতের সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের তথ্য জানানোর যে চুক্তি হয়েছে তারপর সুইস ব্যাঙ্কে কালো টাকা রাখা সম্ভব নয়।’ তিনি লেখেন, ‘এতকাল ধরে কর ফাঁকি দেওয়ার স্বর্গরাজ্য হিসাবে পরিচিত সুইৎজারল্যান্ড আর কালো ধনের মালিকদের জন্য সুবিধাজনক নয়। ভারতের সঙ্গে সুইস সরকারের যে চুক্তি হয়েছে তাতে এটা আর সম্ভব নয়।’

জেটলির দাবি কালোটাকা নিয়ে দেশজুড়ে যেভাবে হইচই শুরু হয়েছে তা ঠিক নয়। সুইসব্যাঙ্কে কালো টাকার পরিমান বাড়লে এই রেকর্ড পরিমাণ ইনকাম ট্যাক্স আদায় হত না। সুইস ব্যাঙ্কের হয়ে তিনি বলেন, ‘এটা সত্যি একটা সময় সুইস সরকার কালো টাকা নিয়ে কোনও তথ্য জানাতে ইচ্ছুক ছিল না সরকারকে কিন্তু এখন সেটা সম্ভব নয়। ভারতের সঙ্গে সুইস সরকারের যে চুক্তি হয়েছে তাতে আগামী দিনে তারা রিয়েল টাইমে ভারতীয়দের