ডেস্ক: অরুণাচল প্রদেশের ভারত-চিন সীমান্ত থেকে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে সেনা আধিকারিকরা। তাদের সন্দেহ এই যুবক পাকিস্তানের গুপ্তচর। সেনার তরফে জানান হয়েছে, যুবকের নাম নির্মল রাই এবং সে তিনসুকিয়া জেলার অম্বিকাপুর গ্রামের বাসিন্দা। ২০১৮ সালের অক্টোবর মাস থেকে সে সেনাবাহিনীর মালবাহক হিসেবে কাজ করছে।

সেনা সূত্রে খবর, ভারতের সম্পর্কে বিভিন্ন নথি ইতিমধ্যেই পাকিস্তানের কাছে সরবরাহ করেছে এই যুবক। তাদের সন্দেহ সোশ্যাল মিডিয়াকেই হাতিয়ার করে এই তথ্য আদানপ্রদান হয়েছে। ওয়াটস্যাপ বা বিভিন্ন ভিডিও কলিং অ্যাপের মাধ্যমেই তথ্যপাচার করেছে এই যুবক। তাকে আটক করার পর জিজ্ঞাসাবাদের সময় তার এক ভাইয়ের কথাও উল্লেখ করেছে সে। এই কথা জানার পর সেনা সন্দেহ করছে গুপ্তচর হিসেবে আরও কয়েকজন হয়তো কাজ করতে পারে। নির্মল যে ভাইয়ের উল্লেখ করেছে তার সন্ধান চালাচ্ছে সেনা আধিকারিকরা।

সেনাবাহিনী মনে করছে, পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিদের দ্বারা দুবাইতে প্রশিক্ষিত হয়েছে এই যুবক। সেখানে তাকে ছবি তোলা থেকে শুরু করে আড়ালে থেকে কীভাবে ভিডিও করতে হবে তারও প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। ট্রেনিং শেষ হলে ওই যুবককে অরুণাচল প্রদেশে পাঠিয়ে দেওয়া হয় এবং চিন সীমান্তে সেনাবাহিনীর হয়ে কাজ করতে বলা হয়। এখানে এসেই যে সেনা বেসক্যাম্পের নিকটবর্তী জায়গাতেই বসবাস শুরু করে এবং পরবর্তী ক্ষেত্রে সেনাবাহিনীর মালবাহক হিসেবে কাজ করতে শুরু করে। যুবকের মূল কাজ ছিল, সেনার হয়ে কাজ করার ফাঁকে বিভিন্ন সময়ে তাদের গতিবিধির ছবি, ভিডিও তোলা এবং গুরুত্বপূর্ণ নথি সরবরাহ করা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here