নিজস্ব প্রতিবেদক, দার্জিলিং: এটা নয় প্রথমবার, এর আগেও লোকসভা নির্বাচনে দার্জিলিং কেন্দ্রে প্রার্থী দিয়েছে তৃণমূল। কিন্তু এবারে ছবিটাই আলাদা। কারন এবার পাহাড়ে এমন কোন বড় শক্তি নেই যে ঘাসফুল প্রার্থীর জয়ের পথে কাঁটা বিছিয়ে দেবে। বরঞ্চ পাহাড়ের জনতা যেন প্রস্তুতি নিচ্ছে ঘাসফুলের প্রার্থীকে সাদরে বরণ করে নিতে। ২০১৭ সালে পাহাড়ের পুরনির্বাচনে মিরিক পুরসভায় তৃণমূলের একার জোরে ক্ষমতা দখল একদিকে যেমন বুঝিয়ে দিয়েছিল ঘাসপ্পহুলের দিন আসছে সামনেই, তেমনি মোর্চার গুরুং শিবিরেও ছড়িয়ে দিয়েছিল তাদের দিন ফুরানোর বার্তা। এরপরই রীতিমত আটঘাট বেঁধে প্পাহাড়ে অশান্তি বাঁধায় গুরুং বাহিনী। এখন অবশ্য সেই গুরুংকেই পাহাড় ছেড়ে লুকিয়ে বেড়াতে হচ্ছে সেদিনের সেই রক্তাক্ষয়ী হিংস্র আন্দোলন আর বনধ রাজনীতির জেরে। পাহাড়ের রাজনীতিতে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার শক্তি এখন কিছুটা হলেও কমেছে। পাশাপাশি মোর্চার ক্ষমতাসীন বিনয় তামাং-অনিল থাপা শিবির এখন তৃণমূলের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখে চলারই পক্ষপাতী। এইরকম অবস্থায় তৃণমূল থেকে দার্জিলিং লোকসভা কেন্দ্রে প্রার্থী করা হয়েছে দার্জিলিং বিধানসভা কেন্দ্রের মোর্চা বিধায়ক অমর সিং রাইকে। স্বাভাবিক ভাবেই মোর্চা তৃণমূল যুগলবন্দিতে জয়ের সম্ভাবনা ক্রমেই বাড়ছে অমর সিং রাইয়ের।

তৃণমূল প্রার্থীকে ঘিরে যে পাহাড়ে উৎসাহ বাড়ছে সেটা পরিস্কার বোঝা গিয়েছে বৃহস্পতিবারই অমর সিং রাই কলকাতা থেকে বাগডোগরা পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গেই। অমরকে স্বাগত জানাতে বৃহস্পতিবার শিলিগুড়ির বাগডোগরা বিমানবন্দরে পাহাড় ও সমতল থেকে উপস্থিত ছিল কয়েকশ মোর্চা ও তৃণমূল কর্মী সমর্থক। অমর সিং রাইকে স্বাগত জানাতে বাগডোগরা বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন স্বয়ং তৃণমূলের জেলা সভাপতি তথা রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব সহ তৃণমূলের প্রথম সারির নেতৃত্ববৃন্দ। বাগডোগরা থেকে হুড খোলা জিপে সড়ক পথেই পাহাড়ের উদ্দেশ্যে রওনা দেন অমর সিং রাই। যাত্রা পথে বিভিন্ন জায়গায় দলীয় প্রার্থীকে স্বাগত জানানো হয় তৃণমূলের পক্ষ থেকে। দার্জিলিংয়ের পথে রওয়ানা দেওয়ার আগে অমর জানান, ‘জেতার ব্যাপারে আমি নিশ্চিত। কারণ মানুষের এই জনসমর্থনের ছবিই সেটা পরিস্কার করে দিচ্ছে। তবে লড়াই হবে জাতির পরিচয়ের দাবিতে।’

 

শুক্রবার সকালে আবার লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের বিজয় নিশ্চিত করার জন্য শিলিগুড়ি শহরের লক্ষীনারায়ণ মন্দিরে পুজো দিয়ে প্রার্থনা করলেন দার্জিলিং জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি তথা রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব। এদিন সকালে তিনি মন্দিরে এসে নিয়ম করে প্রথা মেনে ভক্তির সঙ্গে পূজা করেন। একইসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, ‘ঠাকুরের কাছে প্রার্থনা করেছি যাতে লোকসভা নির্বাচনে দার্জিলিং লোকসভা কেন্দ্রের এবং পাশাপাশি রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের যেন ভালো ফল হয়।’ জানা গিয়েছে পাহাড়ের তিন বিধানসভা কেন্দ্র ছাড়াও সমতলের চারটি বিধানসভা কেন্দ্রেই অমর সিং রাইয়ের মূল পথ প্রদর্শক। কার্যত গৌতমের হাত ধরেই মানুষের কাছে যেতে হবে অমরকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here