kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, বনগাঁ: আর্থিক প্রতারনার অভিযোগে সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া কাউন্সিলরের বাড়ির সামনে শনিবার বিক্ষোভ দেখালো অ্যাম্বুলেন্স চালকরা। স্বাভাবিক ভাবেই ঘটনাটি ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। ঘটনাস্থল উত্তর ২৪ পরগনা জেলার অন্যতম মহকুমা শহর বনগাঁ। কিছুদিন আগেই এই পুরসভায় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব ঘিরে ধুন্ধুমার কাণ্ড বেধেছিল। সেই সময় যে সব কাউন্সিলররা অনাস্থা প্রস্তাবের ওপর ডাকা বৈঠকে উপস্থিত থাকতে পারেননি তাদেরই একজনের বিরুদ্ধে এবার অ্যাম্বুলেন্স সমিতির টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠল।

জানা গিয়েছে, বনগাঁ পুরসভার সদ্য বিজেপিতে যোগদান করা ১০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর দীপ্তেন্দু বিকাশ বৈরাগীর বাড়ির সামনে এদিন বিক্ষোভ দেখান ২৫-৩০ জন অ্যাম্বুলেন্স চালক। তারা অবিলম্বে অ্যাম্বুলেন্স সমিতির টাকা ফেরতের আর্জি জানিয়েছেন। তাদের অভিযোগ, বনগাঁ হাসপাতালের ৪০-৪৫ জন অ্যাম্বুলেন্স চালকের কাছ থেকে দীপ্তেন্দু তিন সাড়ে তিন বছর ধরে ৫০ টাকা করে সদস্য চাঁদা তুলছিল। এর পাশাপাশি তিনি ভাড়া বাবদ প্রতি ট্রিপে ৫০ টাকা করে নিতেন। সব মিলিয়ে প্রায় ৩ লক্ষ ৩১ হাজার ৭৭৫ টাকা নিয়েছেন দীপ্তেন্দু। এই টাকা অ্যাম্বুলেন্স সমিতির নামে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে রাখার কথা ছিল। কিন্তু তিনি তা না করে নিজের অ্যাকাউন্টে রেখেছেন। যার জেরে দীর্ঘ দিন ধরে এই টাকার কোন হদিশ পাচ্ছিলেন না অ্যাম্বুলেন্স চালকেরা।

কোন ভাবে কিছুদিন আগে ওই অ্যাম্বুলেন্স চালকেরা জানতে পারেন, পুরো টাকাটাই দীপ্তেন্দু বৈরাগী তার নিজের অ্যাকাউন্টে সরিয়ে রেখেছেন। সেই খবর পেয়েই এদিন অ্যাম্বুলেন্স চালকেরা বাড়ির সামনে টাকা ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। প্রায় ২৫-৩০ জন অ্যাম্বুলেন্স চালকেরা অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে গিয়ে দীপ্তেন্দুর বাড়ির সামনে তা রেখে বিক্ষোভ দেখান। তারা দাবি করেন, অবিলম্বে দীপ্তেন্দু তাদের টাকা ফেরত না দিলে তারা প্রশাসনের দ্বারস্থ হবেন। এই বিষয়ে দীপ্তেন্দুবাবুর স্ত্রী বলেন, ‘তপু মুন্সি নামে এক তৃণমূল নেতা ওই টাকার দেখাশোনা করত। এই বিষয়ে উনি কিছু জানেন না। ওনার অ্যাকাউণ্টে টাকা থাকলে ফেরত দেওয়া হবে। এখন উনি বাড়ির বাইরে আছেন। য়ার টাকা ফেরাবার সময়ও তো দিতে হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here