মহানগর ওয়েবডেস্ক: শচীন পাইলট দলের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করেছেন। তারপর প্রায় ৪৮ ঘণ্টা কাটতে চলল। এতটা সময় কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্ব বা গান্ধী পরিবারের কোনও সদস্য টুঁ শব্দ পর্যন্ত করেনি এই নিয়ে। সোমবার সন্ধেবেলা অবশেষে নিস্তব্ধতা ভাঙলেন রাহুল। করলেন পরপর দু’টি টুইট। যা কংগ্রেসের ভবিষ্যতের রোডম্যাপের ইঙ্গিতবাহী। যদিও জোড়া টুইটে তিনি কংগ্রেস পার্টির বর্তমান সংকট বা রাজস্থান সরকারের ডামাডোল নিয়ে কিছুই বলেননি। তবে সংবাদ মাধ্যমের একাংশের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন।

রাজস্থান নিয়ে বস্তুতই মারাত্মক চাপে রয়েছে কংগ্রেস। রাহুল বা সনিয়া কেউই শচীন পাইলটের সঙ্গে দেখা করেননি যা সংকট আরও গভীর করে দিয়েছে। রাহুলের এদিনের টুইটেই স্পষ্ট হয়েছে, তিনি চাপের মুখে দল এবং কর্মীদের উদ্বুদ্ধ করতে মাঠে নামছেন কোমর বেঁধে। কংগ্রেসের বর্তমান কাজ করার পদ্ধতি, এর অতীত যাতে স্পষ্ট হয় এবং সকলে এই সম্পর্কে স্বচ্ছভাবে অবগত হন এই নিয়েই তিনি ‘সত্য’ তুলে ধরবেন বলে নিজের টুইটে দাবি করেছেন।

রাহুল এদিন টুইটারে লিখেছেন, ‘আজ ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের একটা বড় অংশ ফ্যাসিস্টদের দখলে। টেলিভিশন চ্যানেল, হোয়াটসঅ্যাপ ফরোয়ার্ড এবং ভুয়ো সংবাদ দ্বারা ঘেন্নার আবহ ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। মিথ্যের এই আবহ ভারতকে ভাগ করে দিচ্ছে।’ পরবর্তী টুইটে রাহুল লিখেছেন, ‘আমি আমাদের বর্তমান বিষয়, ইতিহাস এবং সংকট নিয়ে পরিস্কারভাবে বলতে এবং সবাইকে জানাতে চাই। আগামিকাল থেকে আমি আমার ভাবনা আপনাদের সঙ্গে ভিডিওর মাধ্যমে ভাগ করে নেব।’ রাহুলের এই টুইটের পর অনেকেই মজা করে বলছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কায়দায় এবার নিজের ‘মন কি বাত’ বলতে আসছেন রাহুল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here