দিলীপ-মুকুলদের ডাকে সাড়া, মহালয়ার পরই পুজো উদ্বোধনে কলকাতায় অমিত শাহ

0
145
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বাংলা জয় করতে গেলে শুধু ভোট রণনীতি সাজালে হবে না। রীতিমতো কেতাদুরস্থ বাঙালিবাবু হতে হবে। তবেই মিলবে বাংলা ও বাঙালির ভোট। ব্যাপারটা বছর দু-এক আগে থেকেই হাড়ে হাড়ে টের পেতে শুরু করেছে বঙ্গ বিজেপি শিবির। বাঙালিয়ানা পুরোটা না বুঝলেও অল্পস্বল্প বুঝতে পেরেছেন অমিত শাহ-নরেন্দ্র মোদীও। তাই বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপুজোতেও নিজেদের সামিল করার কোনও কসুর বাকি রাখেননি জয়প্রকাশ-সায়ন্তনরা। সম্প্রতি যে খবর পাওয়া যাচ্ছে, তা বাস্তবায়িত হলে মহালয়ার পরেই কলকাতায় পুজো উদ্বোধনে আসতে পারেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

সূত্রের খবর, বেশ কয়েকটি পুজো কমিটির আবেদনের ভিত্তিতে বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্ব অমিত শাহকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল পুজো উদ্বোধনে আসার জন্য। অমিত সেই ডাকে সাড়াও দিয়েছেন। বিজেপি সূত্রে খবর, পুজো উদ্বোধনে রাজ্য নেতৃত্বের আবেদনে সম্মতি দিয়েছেন তিনি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কলকাতায় পা রাখার আগে মহালয়া। তার আগে থেকেই অবশ্য রাজ্যে আসার পরিকল্পনা রয়েছে বিজেপি কার্যকরী সভাপতি জেপি নাড্ডার। বুধবার দিল্লিতে অমিত শাহের বাসভবনে বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠকের পরই এই তথ্য উঠে এসেছে। অমিত শাহের বাসভবনে বৈঠকের আগে কৈলাস বিজয়বর্গীয়র বাড়িতেও একটি বৈঠক হয়।

পুজো উদ্বোধনে অমিতকে নিয়ে আসার মাধ্যমে কার্যত এক ঢিলে দুই পাখি মারতে চাইছে গেরুয়া শিবির। প্রথমত, বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসবে অংশগ্রহণের মাধ্যমে বাঙালি আবেগকে বোঝা। দ্বিতীয়ত, আগামী বিধানসভা ভোটের আগে শাসকদলকে সবদিক দিয়ে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেওয়ার। এতদিন ভোট ময়দানে বিজেপি-র লম্ফঝম্ফ চললেও বাংলার সামাজিক বা সাংস্কৃতিক কোনও অনুষ্ঠানের অংশ হতে দেখা যায়নি গেরুয়া শিবিরকে। এবার সেই লক্ষ্যেই রাজ্যে পা পড়তে চলেছে অমিতের। সূত্রের খবর, দিলীপ ঘোষ ও মুকুল রায় এর কাছ থেকে বাংলার বিষয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট নিয়েছেন অমিত শাহ। এরপরই রাজ্যে আসার বিষয়ে সম্মতি জানান সর্বভারতীয় সভাপতি।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here