amit shah

নিজস্ব প্রতিনিধি: একগুচ্ছ প্রতিশ্রুতির মধ্যেও ক্রমাগত তৃণমূল সরকারকে বিঁধে গেলেন অমিত শাহ। আদিবাসীদের আবেগ উসকে দিয়ে তিনি বলেন, তৃণমূল সরকার আদিবাসীদের তাঁদের অধিকার দিতে গেলেও কাটমানি চায়। আদিবাসীদের সার্টিফিকেট নিতে গেলে ১০০ টাকা ঘুষ দিতে হয়। বিজেপি সরকার হলে, কোনও ঘুষ দিতে হবে। বাড়িতে সার্টিফিকেট পৌঁছে দিয়ে আসা হবে।

তিনি বলেন, জঙ্গলমহল থেকে তিন জনকে জেতান, আপনারা সোনার বাংলা উপহার পাবেন। অমিত শাহ বলেন, সেই সোনার বাংলায় প্রতিটি তহশিলে মডেল স্কুল তৈরি করা হবে। ক্ষমতায় আসার পর বিজেপির প্রথম ক্যাবিনেট মিটিংয়ে আয়ুষ্মান ভারতের প্রকল্প পশ্চিমবঙ্গে কার্যকর করা হবে। যার ফলে প্রতিটি আদিবাসী স্বাস্থ্য বীমার আওতায় আসবেন। পাশাপাশি তিনি বলেন, বাঁকুড়া-সোনামুখী ও সোনামুখী থেকে মশাগ্রাম পর্যন্ত বিদ্যুৎ পরিষেবা চালু করা হবে। বিজেপি সরকার জঙ্গলের উৎপাদিত ৪৯টি দ্রব্য কিনবে। নাহ্য মূল্য দেওয়া হবে। এখনকার পশ্চিমবঙ্গ সরকার সেই নায্য মূল্য আদিবাসীদের দেয় না। জল সরবরাহ ও ফোনের যোগাযোগ আগের থেকে ভালো করা হবে বলেও অমিত শাহ জানান।

হেলিকপ্টারে ত্রুটির জন্য ঝাড়গ্রামের সভায় উপস্থিত থাকতে পারেননি তিনি। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি বক্তব্য রাখেন। সেই কারণে বাঁকুড়ার রাণিবাঁধে যেতেও দেরি হয়ে যায় তাঁর। এই সভার পর তিনি গুয়াহাটির উদ্দেশে রওনা দেবেন বলে জানা গিয়েছে। রবিবার খড়গপুরে রোড শো করেন অমিত শাহ। সেদিন রোড শোতে অমিত শাহের পাশে ছিলেন খড়গপুরে বিজেপি প্রার্থী হিরণ ও দিলীপ ঘোষ। খড়গপুরে দিলীপ ঘোষ বিধানসভায় দাঁড়াতেন। কিন্তু বর্তমানে তিনি সাংসদ। বিধানসভা নির্বাচনে তিনি প্রার্থী হননি। তাঁর আসনে দাঁড়িয়েছেন হিরণ। ভোটের প্রচারে হিরণকে ক্রমাগত সাহায্য করে যাচ্ছেন দিলীপ ঘোষ ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here