বিরোধীরা মুছে যাবে! অমিতের মন্তব্যে ‘এক দেশ, এক দল’-এর ইঙ্গিত, বাড়ছে ‘আতঙ্ক’

0
1211
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ‘এক দেশ, এক ভাষা’ নিয়ে মন্তব্য করে দেশবাসীর ওপর হিন্দিকে ভাষাকে ‘চাপিয়ে’ দেওয়ার বিষয়ে ইতিমধ্যেই বিজেপির বিরুদ্ধে সরব বিরোধীরা। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের ‘এক ভাষা’ তত্ত্ব মানতে রাজি নয় কেউই। এবার এই বিতর্কের আগুনে আরও ঘি ঢাললেন তিনি নিজে। ‘এক দেশ, এক দল’-এর স্বপক্ষে মন্তব্য করলেন অমিত শাহ।

দিল্লির ‘অল ইন্ডিয়া ম্যানেজমেন্ট অ্যাসোসিয়েশন’-এর অনুষ্ঠানের মঞ্চে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, ‘স্বাধীনতার ৭০ বছর পরে মানুষের মনে প্রশ্ন জেগেছে যে, বহুদলীয় সংসদীয় ব্যবস্থা আসলে কি ব্যর্থ? ওই ব্যবস্থা কি দেশবাসীর লক্ষ্য পূরণ করতে পেরেছে?’ তারপরে নিজেই জবাব দিয়ে বলেছেন, ‘মানুষ আশাহত। আঞ্চলিক দলগুলি আঞ্চলিক আকাঙ্ক্ষাই পূরণ করতে পারেনি।’ একইসঙ্গে তিনি উল্লেখ করেন, ‘দূরদর্শি চিন্তাধারা, দৃঢ় নেতৃত্ব এবং পোক্ত পরিকল্পনার দ্বারাই ১৩০ কোটি মানুষের জন্য ভাল কাজ করা যায়। গোটা দেশ এক হলেই প্রধানমন্ত্রী সকলের উন্নয়নে কাজ করতে পারেন।’ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এই বক্তব্য যে পুরোপুরি ‘একনায়কতন্ত্র’কে সমর্থন করে তা বলাই বাহুল্য।

অমিত শাহের এই মন্তব্য শোনার পরেই তেড়েফুঁড়ে উঠেছে বিরোধী শিবির। কংগ্রেসের তরফে জানানো হয়েছে, বহুদলীয় গণতন্ত্রকে গুরুত্বহীন করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের মন্তব্য ভয়াবহ এবং সেটা যে-ভাবনার ইঙ্গিত দিচ্ছে। একদলীয় সিদ্ধান্ত গৃহীত হলে তা সরাসরি দেশের সংবিধানে আঘাত হানবে। পাশাপাশি এও বলা হয়, এনডিএ নিজেই একাধিক দল নিয়ে তৈরি। যদি ‘এক দল’ সমর্থন করতে হয় তবে তার শরিকদের নিয়েও ভাবতে হবে। শিবসেনার সঙ্গে অন্য শরিকদলগুলিকেও পরোক্ষে বার্তা দিয়েছে কংগ্রেস।

আঞ্চলিক দলগুলির দিকে তাকানো হলে দেখা যাবে, পশ্চিমবঙ্গ সহ মধ্যপ্রদেশ, বিহারে কার্যত বেশ পিছিয়ে রয়েছে তারা। লালুপ্রসাদ জেলে। অখিলেশ-মায়াবতীর কোনও ‘পাত্তা’ নেই। তদন্তের জালে আটকে চন্দ্রবাবু নায়ডু, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল। বিজেপির সঙ্গে বোঝাপড়ার রাস্তায় নবীন পট্টনায়ক। নীতীশ জোটে থেকেও অস্বস্তিতে। দক্ষিণে বিরোধী বলতে একমাত্র ডিএমকে। অন্যদিকে কর্ণাটকেও বিরোধীরা সঙ্গিন। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এই পরিস্থিতির সম্পূর্ণ ফায়দা নিয়ে বিরোধীপক্ষকেই একেবারে ধুয়েমুছে সাফ করে দিতে চাইছেন অমিত শাহ। তাই এখন থেকে এই ধরনের মন্তব্য করে পরিস্থিতি পরোখ করে নিচ্ছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here