ডেস্ক: সম্প্রতি রাজ্যের তৃণমূল নেত্রী তথা মন্ত্রী রত্না ঘোষকে বলতে শোনা গিয়েছে ‘যুদ্ধে জিততে গেলে ন্যায় অন্যায় বোধ থাকলে চলে না।’ পাশাপাশি, কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপর হামলা চালানোরও নিদান দিয়েছেন রত্না দেবী। তাঁর সেই বক্তব্যের প্রেক্ষিতে এবার কড়া ভাষায় আক্রমণ শানালেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

রত্নার বক্তব্যকে নিয়ে এদিন একটি ভিডিও পোস্ট করে রাজ্য বিজেপি। সেই ভিডিওকে রিটুইট করে অমিত শাহ লেখেন, ‘শেষপর্যন্ত মমতা দিদির বিশ্বাসী সৈনিক স্বীকার করে নিলেন তাঁর দল হিংসা ও স্বৈরতন্ত্রের আদর্শে বিশ্বাসী। তবে মমতা দিদিকে স্মরণ করিয়ে দিতে চাই, গণতন্ত্রে এই ধরণের ধ্বংসাত্মক কার্যকলাপ বেশিদিন চলবে না। তৃণমূলকে বাংলার মানুষ আর ভোট দেবে না। ওনার সময় শেষ হয়ে এসেছে।’

উল্লেখ্য, কর্মিসভায় দলীয় কর্মীদের রাজনীতির পাঠ পড়াতে গিয়ে মন্ত্রী তথা নদিয়া জেলার সংগঠনের দায়িত্বে থাকা তৃণমূল নেত্রী রত্না ঘোষ বললেন, যুদ্ধ জিততে গেলে গণতন্ত্রের কথা মাথায় রাখলে চলবে না৷ যুদ্ধ কিভাবে জিততে হবে কেবল সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে৷ তাতে কেন্দ্রীয় বাহিনী বাড়াবাড়ি করলে কি দাওয়াই দিতে হবে সেই রাস্তাও বাতলেছেন মন্ত্রী রত্না ঘোষ৷ সদ্যই এরকমই একটি ভিডিও ফুটেজ মহানগরের হাতে এসেছে৷ এখানেই থামেননি তিনি, ২০১৬ সালের বিধানসভা ভোটের প্রসঙ্গ তুলে ধরে তিনি বলেন, বিধানসভা ভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনীর তাড়া খেয়ে রক্তাক্ত হয়েছিল আমাদের কর্মীরা৷ তিনি বলেন, ভোটের দিন প্রত্যেক বুথে বুথে তিনি যাবেন৷ সেইসঙ্গে মহিলাদের উদ্দেশ্যে রত্নার নিদান, কেন্দ্রীয় বাহিনী বাড়াবাড়ি করলে যেন তারা ঝাঁটা হাতে তেড়ে গিয়ে এলাকা ছাড়া করেন কেন্দ্রীয় বাহিনীকে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here