ডেস্ক: নরেন্দ্র মোদী আসছেন ৩ এপ্রিল, জানা গিয়েছিল আগেই। এবার বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের সভার দিনক্ষণও চূড়ান্ত করে ফেলল বিজেপি। বিজেপি সূত্রে খবর, চলতি মাসের ৩০ তারিখ রাজ্যে একই দিনে একসঙ্গে দুটি সভা করবেন অমিত। ঠিক মোদীর কায়দায়। মোদী ৩ এপ্রিল সভা করবেন দুটি। প্রথম, শিলিগুড়ি দুপুর ১টায়। দ্বিতীয়টি কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে, দুপুর ২টোয়।

অন্যদিকে ৩০ মার্চ অমিত শাহ সভা করবেন দুটি। প্রথম সভাটি হবে কোচবিহারে। এরপর রায়গঞ্জে উড়ে যাবেন বিজেপি সভাপতি। সেখানে তাঁর দ্বিতীয় সভা হবে। এখানেই শেষ নয়। এরপর ফের মোদীর সভার আগের দিন অর্থাৎ ২ এপ্রিল উত্তরবঙ্গের আলিপুরদুয়ারে আরেকটি জনসভা করবেন অমিত। ফলে লোকসভা নির্বাচনের আগে উত্তাপ যে ভালোই বৃদ্ধি পাবে, তা বলে রাখা যায়। তবে মোদী বা শাহে থেমে না থেকে বিজেপি চাইছে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী তথা হিন্দুত্বের পোস্টারবয় যোগী আদিত্যনাথকেও। শোনা যাচ্ছে লোকসভার আগে রাজ্যে আরেক দফা প্রচারে আসতে পারেন তিনি। তবে যোগীর সভার দিনক্ষণ এখন চূড়ান্ত হয়নি। তবে বিজেপি সূত্র মারফৎ যেটুকু জানা গেছে, তাতে সভার জন্য মালদহ, বসিরহাট, উত্তর দিনাজপুর এবং ঘাটাল এই চারটি জায়গার নামই উঠে এসেছে।

প্রসঙ্গত, রবিবার এক সাংবাদিক বৈঠক করে মুকুল রায় জানান এ রাজ্যে একই দিনে পরপর দুটি সভা করবেন মোদী। একই দিনে পরপর দুই সভা করা নিয়ে প্রস্তুতিও শুরু করে দিয়েছে বঙ্গ বিজেপি। বাংলার মানুষের কাছে বিজেপির হয়ে কথা বলার জন্য মোদী আসবেন বলে জানান মুকুল। কোনও রাজনৈতিক দল ব্রিগেডের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে উত্তরবঙ্গে সভা করার সাহস দেখাতে পারেনি বলে দাবি করেন তিনি। কিন্তু প্রথম এই কাজ করে দেখাবে ভারতীয় জনতা পার্টি।

এদিন প্রধানমন্ত্রীর লেখা একটা চিঠিও পড়েন মুকুল রায়। সেই চিঠিতে মূলত দেশবাসীর উদ্দেশ্যেই বার্তা দিয়েছেন মোদী। নমোর এই চিঠিতে বিগত পাঁচ বছরে এনডিএ সরকারের উন্নয়নমূলক কাজের খতিয়ান দেওয়া হয়েছে। এই মুহূর্তে দেশের ভবিষ্যৎ নির্ধারণের লগ্নে তিনি বিশেষ করে যুবসমাজকে সুচিন্তিত পদক্ষেপ গ্রহণ করতে অনুরোধ করেছেন। মোদ্দা কথা, এই চিঠির মাধ্যমে যুব সমাজকে কার্যত যুব সমাজ যাতে বিজেপিকে ভোট দেয়, সেই অনুরোধই করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here