ডেস্ক: আড়াই বছরের ছোট্ট ঐত্রির মৃত্যুতে ইতিমধ্যেই কোনঠাসা মুকুন্দপুর আমরি হাসপাতাল। পাল্টা ঐত্রির পরিবারকে চাপে ফেলতে তাঁদের বিরুদ্ধ এবার স্বাস্থ্য কমিশনে অভিযোগ দায়ের করলেন আমরি হাসপাতালের ইউনিট হেড জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায়।

জয়ন্তীর অভিযোগ অনুযায়ী, তিনি ঐত্রির পরিবারকে কোনও রকম হুমকি দেননি। উল্টে তাঁর দাবি, গণ্ডগোলের সময় তাঁর হাত মচকে দেওয়া হয়েছিল। এই ঘটনার প্রমান সাপেক্ষে আমরি কর্তৃপক্ষের দাবি, ওইদিন ভিড়ের কারণে সিসিটিভি ফুটেজের ছবি স্পষ্ট নয়। তারজন্য ওইদিন সংবাদমাধ্যমের কাছে ভিডিও ফুটেজ জাইতে পারে স্বাস্থ্য কমিশন।

উল্লেখ্য, গত ১৭ জানুয়ারি মুকুন্দপুর আমরি হাসপাতালে চিকিৎসার গাফিলতিতে মৃত্যু হয় আড়াই বছরের ঐত্রির। অভিযোগ, প্রয়োজনের সময় বেবি অক্সিজেন মাস্ক দিতে পারেনি হাসপাতাল। এমনকী, ঘুমের মধ্যে শিশুটিকে ভুল ইঞ্জেকশনও দেওয়া হয়। তার কিছুক্ষণের মধ্যেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে ঐত্রেয়ী। ঘটনার পর পাল্টা শিশুটির পরিবারকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ ওঠে আমরির ইউনিট হেড জয়ন্তী চ্যাটার্জির বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, ‘মস্তানি করবেন না। আমার থেকে বড় মস্তানে এখানে কেউ নেই।’ সেই ঘটনার পর অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি তৈরি হয় হাসপাতালে। যাদবপুর পূর্ব থানায় অভিযোগ দায়ের হয় দুটি, একটি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ও অন্যটি আমরির ইউনিট হেড জয়ন্তী চ্যাটার্জির বিরুদ্ধে। পরে স্বাস্থ্য কমিশনের তদন্তে এই মুহূর্তে বেশ বিপাকে আমরি। এবার ওইত্রির পরিবারের বিরুদ্ধে জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায়ের দাবি কোনও রকম হুমকি দেননি তিনি। উল্টে তাঁর হাত মচকে দেওয়া হয় ওই দিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here