news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ৯১ জন যাত্রী সহ ৮ জন বিমানকর্মী নিয়ে মাটি ছোঁয়ার ঠিক কয়েক মিনিট আগে ঘন বসতিপূর্ণ এলাকায় ভেঙে পড়ল পাকিস্তান ইনটারন্যাশনাল এয়ারলাইনস (পিআইএ)–এর A320 এয়ারবাস। এখনও পর্যন্ত যাত্রী বা বিমানকর্মীদের কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। অতিমারীর কারণে দেশজোড়া লকডাউনের পর গতকাল থেকেই পাকিস্তানে বানিজ্যিক উড়ান চালু হয়েছে।

পিআইএ উড়ান নম্বর পিকে–৮৩০৩ করাচির জিন্না আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের মাটি ছোঁয়ার কয়েক মিনিট আগে মডেল কলোনির কাছে জিন্না গার্ডেন অঞ্চলে ভেঙে পড়ে। অঞ্চলটি যথেষ্ট ঘন বসতিপূর্ণ বলে জানা গিয়েছে। যেখানে বিমানটি ভেঙে পড়েছে সেই অঞ্চলে একাধিক বাড়িতে আগুন লেগে গিয়েছে। বিশাল ধোঁয়ার কুণ্ডলী পাক খেয়ে আকাশে ওঠার দৃশ্য দেখাচ্ছে পাক গণমাধ্যম, তারই মধ্যে দিয়ে অ্যাম্বুলেন্স সঠিক জায়গায় পৌঁছনোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

আপাতত ২৫ জন স্থানীয় বাসিন্দার আহত হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। পাকিস্তানের অসামরিক বিমান পরিবহণ দফতর সূত্রে সংবাদ সংস্থাকে জানানো হয়েছে, অবতরণের ঠিক এক মিনিট আগে বিমানটির সঙ্গে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিল। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বিমান দুর্ঘটনার দ্রুত তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন। তিনি টুইট করে জানান, এই দুর্ঘটনার জন্য তিনি মর্মাহত, এই মুহূর্তে উদ্ধার ও ত্রাণ কার্যকেই অগ্রাধিকার দিতে হবে। দ্রুত তদন্ত শুরু করা হবে জানিয়ে মৃতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

পাকিস্তান গণমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর কুইক রিয়্যাকশন ফোর্স ও পাকিস্তান রেঞ্জার দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার ও ত্রাণকার্যে সহায়তা করছে। যদিও অঞ্চলটি ঘন বসতিপূর্ণ হওয়ায় উদ্ধারকার্য ব্যহত হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। করাচির সমস্ত বড় হাসপাতালে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here