kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, মালদা: বর্ষায় জমা নোংরা-পচা জল ঠেলেই দিনযাপন করতে হচ্ছিল এলাকায় প্রায় ৫০০ পরিবারকে। একাধিকবার পুর প্রশাসনের কাছে অভিযোগ জানিয়ে ফল না মেলায় বাধ্য হয়ে জাতীয় সড়ক অবরোধ করলেন এলাকাবাসী। মালদার ইংরেজবাজার পুরসভার বেহাল নিকাশি ব্যবস্থার কথা সকলের জানা। সামান্য বৃষ্টিতেই শহরের কৃষ্ণপল্লি, মালঞ্চপল্লি, প্রান্তপল্লি, রামকৃষ্ণপল্লি-সহ বিভিন্ন এলাকায় জল জমে যায়। বর্ষার মরসুমে ঘর থেকে বেরোনোয় দায় হয়ে ওঠে ওই এলাকার বাসিন্দাদের। এবছরের বর্ষা শুরুতেই মালঞ্চপল্লি এলাকায় জল জমে যায়। এমনিতেই জল জমে ছিল। তার ওপর গত কয়েকদিনের বৃষ্টিতে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়ে যায়। রাস্তা দিয়ে যানবাহন চলাচলের বদলে চলতে দেখা যায় ছোটো নৌকা।

kolkata news

অবশেষে প্রশাসনের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওই এলাকার মানুষজন ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে। এলাকার মহিলারা রাস্তায় বসে প্রশাসনের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকেন। অবরোধের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। তবে পুলিশের আশ্বাসে অবরোধ তুলতে রাজি হয়নি অবরোধকারীরা। প্রায় ঘণ্টা তিনেক পরে ঘটনাস্থলে আসেন এসডিও (সদর) সুরেশচন্দ্র রানো ও প্রাক্তন মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরি। দু’জনের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেন স্থানীয়রা।

ঘটনা প্রসঙ্গে পুরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান তথা বর্তমান প্রশাসক নীহাররঞ্জন ঘোষ বলেন, ওই এলাকায় জল নামার রাস্তা নেই। যেখানে জল জমেছে সেটা বিল। বিলের পাশে মানুষ বাড়ি তৈরি করায় বিলের জল বাড়লে সেই জল বাড়িতে চলে যাচ্ছে। যতক্ষণ পর্যন্ত বিলের জল না কমবে, ততক্ষণ ওই এলাকা থেকে জল নামানোর কোনও রাস্তা নেই। তবে আজ যে ভাবে জাতীয় সড়ক অবরোধ করা হয়েছে তা ঠিক নয়। ইতিমধ্যে আমি প্রচুর টাকা ডেভেলপমেন্টের জন্য বরাদ্দ করেছি। জলের জন্য সেই কাজ আটকে আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here