ক্ষতির বোঝা সইতে না পেরে রিলায়েন্স কমিউনিকেশন থেকে পদত্যাগ অনিল আম্বানির

0
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ব্যাপক ক্ষতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে ভারতের টেলিকমিউনিকেশন সংস্থাগুলি। এ খবর এতদিনে আর ঢাকা নেই। তবে ক্ষতির নিরিখে জিও বাদে বাকি কোম্পানিগুলি এতটাই ধুঁকতে শুরু করেছে যে দেশ থেকে ব্যবসা গুটিয়ে নেওয়ার কথা ভাবছে তারা। আর চলতি অর্থবর্ষের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিক রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার পরই সবথেকে বড় ধাক্কাটা খেল রিলায়েন্স কমিউনিকেশন। এই সংস্থার ডিরেক্টরের পদ থেকে ইস্তফা দিলেন অনিল ধিরুভাই আম্বানি। অনিল ছাড়াও ছায়া ভিরানি, রায়না কারানি, মঞ্জরি ক্যাকার, সুরেশ রাঙ্গাচার সংস্থার ডিরেক্টর পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন।

এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘এর আগেই সংস্থার ডিরেক্টর এবং মুখ্য আর্থিক আধিকারিকের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন মণিকান্থন ভি। ইস্তফাপত্রগুলি অনুমোদনের জন্য ঋণদাতাদের কমিটির কাছে পেশ করা হবে।’

রিলায়েন্স কমিউনিকেশন গোষ্ঠী যে কার্যত ঋণের বোঝায় ডুবে দেউলিয়া হয়ে গিয়েছে সেই সম্পর্কে কম-বেশি সকলেই ওয়াকিবহাল। তবে এশিয়ার ধনিতম ব্যক্তির ভাইয়ের দুঃখের দিন যেন আর ফুরোতে চাইছে না। দ্বিতীয় ত্রৈমাসিক রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে, অর্থাৎ জুলাই থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে ৩০ হাজার ১৪২ কোটি টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে সংস্থাটি। মূলত বড় ভাই মুকেশের জিও বাজারে আসার পর থেকেই ক্ষতির পরিমাণ বেড়েছে এই সংস্থাগুলির। তবে তা এখন আলদা পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে। প্রথম অর্থবর্ষে এই ক্ষতির পরিমাণই ছিল ৩৬৬ কোটি।

কিন্তু সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্ট একটি নির্দেশ দেয় যেখানে বিভিন্ন সংস্থাগুলিকে কয়েক হাজার কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয় কেন্দ্রীয় সরকারকে। সেই হিসেবে রিলায়েন্সের ওপর প্রায় ২৮ হাজার কোটি টাকার দেনা চাপে। আর তারপরই এই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here