national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: এনপিআর ফর্ম থেকে বাদ দিতে হবে আপত্তিকর অংশগুলি। এনপিআরে বাধা নেই যদি তা হয় ২০১০ সালের ধাঁচে। এমনই দাবি তুলে বিহারের পর এবার কেন্দ্রের এনপিআর বিরোধী প্রস্তাব পাশ হয়ে গেল অন্ধ্রপ্রদেশ বিধানসভায়। একের পর এক রাজ্যে সরকারের নীতির বিরুদ্ধে প্রস্তাব পাশ হওয়ায় বেশ চাপে মোদী সরকার।

কেন্দ্রের সিএএ ও এনআরসির বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে রুখে দাঁড়িয়েছে দেশের একাধিক রাজ্য। এহেন পরিস্থিতিতে এনপিআরও বাঁধার মুখে পড়ছে বার বার। মঙ্গলবার অন্ধ্রপ্রদেশ বিধানসভায় এনপিআর বিরোধী প্রস্তাব পাশ হওয়ার পর এক টুইট বার্তায় মুখ্যমন্ত্রী জগন মোহন রেড্ডি জানান, ‘কেন্দ্রীয় সরকারের এনপিআর ফর্মে এমন কিছু প্রশ্ন তোলা হয়েছে যা নিয়ে আমার রাজ্যের সংখ্যালঘুরা উদ্বিগ্ন। যার জেরে দল সিদ্ধান্ত নিয়েছে এনপিআর যদি করতেই হয় তবে ২০১০ সালের ধাঁচে এনপিআর হোক। বর্তমান এনপিআর কোনও ভাবেই এই রাজ্যে হতে দেওয়া যাবে না।’ বলার অপেক্ষা রাখে না অন্ধ্রপ্রদেশও কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে পথ হাঁটায় বেশ চাপে পড়ল বিজেপি সরকার।

উল্লেখ্য, কেরল, পশ্চিমবঙ্গ সহ দেশের একাধিক রাজ্য ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকারের সিএএ বিরোধী প্রস্তাব পাশ করেছে নিজের নিজের বিধানসভায়। এনআরসি কোনওভাবেই দেশে করা যাবে না বলে সুর চড়িয়েছে প্রায় সমস্ত বিরোধী রাজ্যের পাশাপাশি এনডিএর শরিকরা। বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারও এনআরসি বিরোধিতার পাশাপাশি বর্তমান এনপিআরের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে। এবার একই পথে হাঁটলেন জগন মোহন রেড্ডিও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here