ইনজেকশন দেখলেই ভয়ে সিঁটিয়ে যান কেষ্ট, পিজিতে সে এক অন্য মানুষ

0
1039
anubrata-1 bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: চড়াম চড়াম ঢাক থেকে, নকুলদানা এমনকি পুলিশকে সরাসরি বোমা মারার হুঁশিয়ারি দিতেও একবারও ঠোঁট কাঁপে না তাঁর। রাজনীতির ময়দানে তাঁর দাপট বরাবর দেখে এসেছে বীরভূমবাসী। এহেন অনুব্রত ইঞ্জেকশন দেখলে যে ভয়ে এমন কুঁকড়ে যান কে তা জানত। আর অপারেশনের নাম শুনলে তো ভয়ে ইষ্টদেবতার নাম জপতে থাকেন তিনি।

বিগত কয়েকবছর ধরে ফিসচুলার সমস্যায় কাহিল অনুব্রত মণ্ডল। পরিস্থিতি সম্প্রতি বাড়াবাড়ি হওয়ার জেরে এসএসকেএম হাসপাতাল ভর্তি হতে হয় তাঁকে। মমতার সুপারিশে যার ভর্তি এবং যার চিকিৎসার উপর নজরদারি চালাচ্ছেন খোদ মেয়র ফিরহাদ হাকিম তাঁর চিকিৎসা করতে শুরুতে ভিআইপি সিন্ড্রোমে ভুগছিলেন চিকিৎসকরা। তবে চিকিৎসার পর সেই ডাক্তারদের দাবি, টিভির সামনে তাঁকে যতই কঠিন লাগুক না কেন আদতে তিনি একজন মাটির মানুষ। এমনকি ইনজেকশন দেখলে ভয়ে কুঁকড়ে যান তিনি। আর অস্ত্রপচারের কথা শুনলে কথাই নেই, ইষ্টনাম জপ করতে শুরু করেন মনে মনে। ওই ভয়েই এতদিন অপারেশনের রাস্তায় হাঁটেননি তিনি। যার জন্য পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে। তবে হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, অপারেশনের পর আপাতত সুস্থই রয়েছেন তিনি। অল্প কয়েকদিনের মধ্যে তাঁকে ছেড়্রে দেওয়া হবে হাসপাতাল থেকে।

এদিকে জানা গিয়েছে, যতদিন তিনি হাসপাতালে থাকছেন, কড়া পর্যবেক্ষনে রাখা হচ্ছে তাঁকে। সমস্ত কিছুর উপর নজরদারি রাখছেন খোদ ফিরহাদ হাকিমের আপ্ত সহায়ক। হাসপাতালের ডাক্তার ও নার্সদের তরফেও জানা গিয়েছে, একেবারে মাটির মানুষ অনুব্রত মণ্ডল। ডাক্তাররা যা বলেন তা অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলেন অনুব্রত। ভীষণ হাসিখুশি থাকতে ভালবাসেন তিনি। এমনকি অপারেশন হওয়ার শেষে উডবার্ন ওয়ার্ডের সমস্ত চিকিৎসক ও নার্সদের কলকাতার সেরা মিষ্টি খাওয়ার তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here