নিজস্ব প্রতিবেদক, সিউড়ি: ‘বিজেপি ভাবছে তৃণমূলের যারা কাছের লোক তাদের একে একে সরিয়ে দেব। দল দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখবে।’ রবিবার বীরভূমের খয়রাশোলে তৃণমূলের ব্লক সভাপতির গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় বিরোধীদের উদ্দেশ্য করে এমন মন্তব্যই করলেন বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। রবিবার বীরভূমের খয়রাশোলের ব্লক সভাপতি দুষ্কৃতীদের হাতে গুলিবিদ্ধ হন। তৃণমূলের তরফে বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়। যদিও গোটা ঘটনাকে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বলে উড়িয়ে দেওয়া হয় বিজেপির তরফে। এদিন অনুব্রত মণ্ডল তৃণমূলকে দুষে উদ্দেশ্যে আরও বলেন, ”বিজেপি বাইরে থেকে দুষ্কৃতী এনে গুলি করিয়েছে ব্লক সভাপতিকে। বীরভূমের পঞ্চায়েত সমিতি, জেলা পরিষদ, গ্রাম পঞ্চায়েত কোথাও কোনও ঝামেলা হয়নি। বিজেপির ক্ষমতা থাকলে সামনে এসে বলুক যে এই ঘটনা তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব।” প্রসঙ্গত, রবিবার দুপুরে খয়রাশোলের ব্লক সভাপতি দীপক ঘোষ।

তার এক সঙ্গীর সঙ্গে মোটর বাইকে করে খয়রাশোলের বাড়ি থেকে গড়িয়ার গ্রামের বাড়িতে যাচ্ছিলেন তিনি। মাঝ রাস্তায় হিংলো নদীর ধারে নির্জন স্থানে তিন দুষ্কৃতী তাদের পথ আটকায়। জানা গিয়েছে, দীপক বাবুকে গুলি করার পাশাপাশি ছুরির কোপ মারা হয়। যদিও দুষ্কৃতীরা দীপকবাবুর সঙ্গীর ওপর হামলা চালায়নি তারা। প্রথমে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় নাকরাকোন্দা প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে দুর্গাপুরের এক বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয় তাকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here