kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঝাড়গ্রাম: বিস্ফোরক মন্তব্যের জন্য সংবাদে শিরোণামে শীর্ষে থাকে তার নাম৷ তার কথায় বাঘে গোরুতে এক ঘাটে জল খায়৷ তিনি বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল৷ নির্বাচন কমিশনও ভোটের দিন তার পায়ে বেড়ি পরিয়ে রাখেতে পারেনি৷ হামেশাই পাচন আর নকুলদানা দিয়ে বিরোধীদের সায়েস্তা করার কথা শোনা গিয়েছে তার মুখে৷ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলতে শোনা গিয়েছে কাউকে ভয় পাই না৷ নিজ মন্তব্যের জন্য বারে বারে কমিশনের তলব পেলেও থোড়াই পরোয়া করেন তিনি৷

সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশ থেকে ছেলে ঢুকিয়ে দিয়ে তৃণমূলের কর্মীদের কুকুরের মতো মারার হুমকি দিয়েছিলেন ভারতী ঘোষ৷ তার মন্তব্যের জবাবও দিয়েছে তৃণমূল৷ ভারতীর মন্তব্যের পাল্টা মন্তব্য করে অনুব্রত বলেন, কি ধুরন্ধর মহিলা৷ আর এরপরেই ভারতীকে পাল্টা আক্রমণ শানাতে গিয়ে ফের বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসলেন কেষ্ট, বললেন, ভারতী যদি আমাদের কর্মীদের কুকুরের মতো মাকে, ওকে আমাদের কর্মীরা শুয়োরের মতো ছুটিয়ে ছুটিয়ে মারবে৷

নির্বাচন শেষ হলেই সেটা বুঝতে পারবেন বলে জানান কেষ্ট৷ বুধবার ঝাড়গ্রাম লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী বীরবাহা সরেনের সমর্থনে গড়বেতা এলাকায় রোড শো করেন বীরভূমের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল। গরবেতা থানার অন্তর্গত ধাদিকা থেকে গড়বেতা বাজার হয়ে আমলাগোড়া পর্যন্ত এই রোড শো করেন তিনি। বুধবার রাতে কেশিয়াড়িতে দিলীপ ঘোষের গাড়িতে হামলার জন্য তৃণমূলকে দায়ী করে বিজেপি৷ বিজেপি প্রার্থীর গাড়িতে হামলা প্রসঙ্গে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে মুকুল রায় মুখ্যমন্ত্রীকে গ্রেফতারের দাবি জানান৷ এরপরই এই প্রসঙ্গে অনুব্রতকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, যিনি মুখ্যমন্ত্রীকে গ্রেফতার করার কথা বলছেন নির্বাচনের পর উনি কোথায় থাকবেন সেটা ঠিক করে নিলে ওনার ভাল হবে। কৌতুহলী অনেক মানুষই এদিন সংবাদমাধ্যমের শিরোনামে থাকা এই অনুব্রত মণ্ডলকে দেখতে এদিন হাজির হয়েছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here