নিজস্ব প্রতিবেদক, কোচবিহার ও ডোমকল: রাজ্য পুলিশের তৎপরতায় কোচবিহার ও মুর্শিদাবাদ জেলায় উদ্ধার হল বিপুল পরিমান আগ্নেয়াস্ত্র। দুটি ঘটনার জেরেই ছড়িয়েছে তীব্র চাঞ্চল্য। সব থেকে বড় চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে ওই বিপুল পরিমান আগ্নেয়াস্ত্র কিভাবে এরাজ্যে এল। চিন্তার বিষয় এতাই যে, ওই সব আগ্নেয়াস্ত্র এখন কার্যত মুড়ি মুড়কির মত দুস্কৃতিদের হাতে ঘুরতে শুরু করেছে। বেশ কিছু ক্ষেত্রে রাজনৈতিক দলগুলির কর্মীদের কাছেও তা দেখতে পাওয়া যাচ্ছে।

মঙ্গলবার রাতে কোচবিহার জেলার দিনহাটা ও পুন্ডিবাড়িতে অভিযান চালিয়ে ৫টি বন্দুক সহ ৫ জনকে গ্রেপ্তার করে। উদ্ধার হয়েছে ২২টি কার্তুজ, ৪টি ম্যাগাজিন। এনিয়ে গত দুসপ্তাহে ৯টি বন্দুক উদ্ধার হল এই জেলা থেকে। জানা গিয়েছে, পঞ্চায়েত নির্বাচনে ব্যাপক বন্দুকের ব্যবহার হয়েছে কোচবিহার জেলায়। নির্বাচনের আগে বন্দুক উদ্ধার না হলেও নির্বাচনের পর থেকে বন্দুক উদ্ধার শুরু হয়েছে। দিন দশেক আগে সিতাই থেকে ৪টি বন্দুক উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর মঙ্গলবার রাতে গোপান সূত্রে খবর পেয়ে দিনহাটায় নাকা চেকিং করে ৪টি বন্দুকের পাশাপাশি ২২টি কার্তুজ ও ৪টি ম্যাগাজিন উদ্ধার করে জেলা পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয় মিন্টু রহমান ও মোমিনুর মিয়া নামে দুই যুবককে। দুজনেরই বাড়ি দিনহাটাতে। এই চক্রে আরো কারা জড়িত তার সন্ধান শুরু করেছে পুলিশ। এদিকে ওই দিন রাতেই অভিযান চালিয়ে পুন্ডিবাড়ি থেকে একটি বন্দুক সহ ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জেলা পুলিশ সুপার ডা: ভোলানাথ পান্ডে বলেন, ধৃতদের জিঞ্জাসাবাদ করা হচ্ছে।

অন্যদিকে অস্ত্র সহ এক কারবারিকে গ্রেপ্তার করল মুর্শিদাবাদ জেলার পুলিশ। মুর্শিদাবাদের ডোমকল মহকুমার ইসলামপুর থানার পুলিশ গোপনসুত্রে খবর পেয়ে ইসলামপুর থানার পুলিশ মঙ্গলবার রাতে নাজিরপুর এলাকায় তল্লাশি চালায়। তখনই তাদের হাতে লোকমান সেখ(৩৬) নামে এক অস্ত্র কারবারী অস্ত্র সমেত ধরা পড়ে। তার বাড়ি ডোমকল থানার কুপিলা গ্রামে। পুলিশের কাছে খবর ছিল লোকমান বেশ কিছুদিন ধরে অস্ত্র কারবারের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। তার কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে চারটি সেভেন এমএম পিস্তল, আটটি ম্যাগাজিন ও ষোলো রাউন্ড গুলি। ধৃতকে বুধবার আদালতে তোলা হলে পুলিশি হেপাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। ডোমকল মহকুমা পুলিশ আধিকারিক মাকসুদ হাসান জানান তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ওই ঘটনায় আর কে বা কারা জড়িত আছে তা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here