INDIA china

মহানগর ওয়েবডেস্ক: গালোয়ান ভ্যালিতে ২০ জন ভারতীয় জওয়ানের হত্যা একেবারেই মানতে পারছে না ভারত। ফল যে ভালো হবে না, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই চিনকে হুমকি দিয়েছে কেন্দ্র। খোদ প্রধানমন্ত্রী বলেছেন শহিদদের রক্ত বিফলে যাবে না। আর এর পরেই সীমান্তে ফের ধীরে ধীরে সেনার সংখ্যা বাড়ানো শুরু করেছে ভারত। সেই সঙ্গে নৌসেনা এবং বায়ুসেনাকেও যেকোনও পরিস্থিতির জন্য তৈরি থাকতে বলা হয়েছে।

লাদাখে যবে থেকে দুই দেশের সেনার মধ্যে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়েছে, তারপর থেকে প্রথমবারের জন্য বুধবার চিনা বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে ফোনে কথা বলেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। ফোনে তিনি ওই ঘটনার সমালোচনা করার পাশাপাশি চিনা সেনা কীভাবে পূর্বপরিকল্পিত ভাবে এই কাণ্ড ঘটিয়েছে, সেই বিষয়েও উষ্মা প্রকাশ করেন জয়শঙ্কর।

অন্যদিকে, কিছুদিন আগেই সীমান্তকে থেকে অতিরিক্ত সেনা প্রত্যাহার করে ভারত। কিন্তু এই ঘটনার পর থেকেই লাইন অফ একচুয়াল কন্ট্রোলে ফের অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। সীমান্তে পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছে ভারতীয় বায়ুসেনাও। অন্যদিকে, ভারত মহাসাগরে তৈরি থাকতে বলা হয়েছে নৌসেনাকে। এই প্রসঙ্গে এক সরকারি আধিকারিক বলেন, ‘আশা করি চিনের শুভবুদ্ধির উদয় হবে। আমাদের কাছে একাধিক উপায় রয়েছে এবং সেগুলি ব্যবহার করতে আমরা পিছপা হব না।’

অন্যদিকে, সীমান্তে একাধিক ইনফ্রাস্ট্রাকচার উন্নয়নে আরও জোর দিচ্ছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। গালোয়ান ভ্যালিতে যে রাস্তা তৈরি নিতে সংঘাতের শুরু, সেই রাস্তা তৈরির কাজ আরও বাড়িয়ে দিয়েছে ভারত। ইতিমধ্যেই ইন্দো-তিব্বত বর্ডার পুলিশ, বর্ডার রোড অর্গানাইজেশন, সেন্ট্রাল পাবলিক ওয়ার্কস ডিপার্টমেন্টের সঙ্গেও বৈঠক করেছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here