kolkata news
Parul

 

ads

নিজস্ব প্রতিনিধি: নাম না করে এবার রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘প্রতারক’, ‘মিথ্যাবাদী’, ‘বিশ্বাসঘাতক’ বলে আক্রমণ করলেন অরূপ রায়। বললেন, যিনি ক’দিন আগেই মুখ্যমন্ত্রীর নামে গালাগালি করেছেন, দলের নামে গাল দিয়েছেন, আজকে উনি পায়ে ধরছেন। এদের লজ্জাও নেই। সোমবার বিকেলে নাম না করে রাজীব প্রসঙ্গে ওই মন্তব্য করেন অরূপ রায়।

অরূপ রায় এদিন সাংবাদিকদের বলেন, ‘প্রতারক, মিথ্যাবাদী, বিশ্বাসঘাতককে নিয়ে এত মাতামাতির দরকার নেই। মুখ্যমন্ত্রীর নামে অনেক কটূক্তি উনি করেছেন। তার প্রমাণ রয়েছে। নানা ধরনের মিথ্যা কথা উনি বলেছেন। এখন বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে পায়ে ধরছেন। এদের লজ্জাও নেই। যিনি ক’দিন আগেই মুখ্যমন্ত্রীর নামে গালাগালি করেছেন, দলের নামে গাল দিয়েছেন, আজকে উনি পায়ে ধরছেন। যদি বিজেপি ক্ষমতায় আসত তা হলে কি উনি আমাদের দলে আসতেন? ওকে নিয়ে এত মাতামাতি করার দরকার নেই। উনি কার কাছে গিয়েছেন তাতে কিছু যায় আসে না। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সুব্রত বক্সী বা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে তো উনি যাননি। সুতরাং, দল কাকে নেবে না নেবে দলের ব্যাপার। দল সিদ্ধান্ত নেবে কাকে দলে নেওয়া হবে। কিন্তু আমরা এই বেইমান বিশ্বাসঘাতকদের যারা কঠিন সময়ে মা-কে ছেড়ে চলে যায় তাদেরকে আমরা কোনওদিন ক্ষমা করব না। হাওড়ার লাখো লাখো কর্মী ক্ষমা করবে না।‘

উল্লেখ্য, একুশের বিধানসভা ভোটে শোচনীয় ভরাডুবির পর দলবদলু নেতারা ফের বিজেপি ছেড়ে পুরনো দলে (তৃণমূল) আসার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। ইতিমধ্যেই মুকুল রায় ও তাঁর ছেলে শুভ্রাংশু তৃণমূল ভবনে গিয়ে পুরনো দলে যোগ দিয়েছেন। এরপরই কুণাল ঘোষের বাড়িতে যান রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। দুই তরফেই দাবি করা হয় সেটা ছিল সৌজন্য সাক্ষাৎ। এরপর রাজীব যান তৃণমূল নেতা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতেও। রাজীবের তৃণমূলে ফেরা নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়।

এমনিতেই বেশ কিছুদিন থেকে শোনা যাচ্ছিল, রাজীব এবার তাঁর পুরনো দলেই ফিরবেন। এরপর তাঁর কুণাল ঘোষের সঙ্গে সাক্ষাৎ এবং পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ সেই জল্পনাকে আরও জোরালো করেছে। যদিও রাজীবের কেন্দ্র ডোমজুড়ে এই নিয়ে বিক্ষোভ অবরোধ চলছে। রাজীবের বিরুদ্ধে পোস্টার পড়েছে। তৃণমূল কর্মীরা দাবি করেছেন, ‘গদ্দার’, ‘মীরজাফর’ রাজীবকে যেন দলে ফেরানো না হয়। এবার এই ইস্যুতে মুখ খুললেন হাওড়ায় সদর তৃণমূল কংগ্রেসের চেয়ারম্যান তথা মন্ত্রী অরূপ রায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here