ভোটব্যাঙ্কে টান! বাতিল হওয়ার পথে অসম এনআরসি, রাজ্যসভায় ইঙ্গিত শাহের

0
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: গোটা দেশে সাড়া ফেলে ১৬০০ কোটি টাকা খরচের পর সম্প্রতি অসমে নাগরিকপঞ্জী তালিকা প্রকাশ করেছে সরকার। যে তালিকায় ভারতের নাগরিকত্ব হারিয়েছে ১৯৬ কোটি মানুষ। এদের মধ্যে আবার ১৩-১৪ লক্ষ মানুষই হিন্দু। সরকার বহু সাধনার এই এনআরসি ভুলে ভরা বলে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছে অসমের শাসক বিরোধী দুপক্ষই। এমন পরিস্থিতির মাঝেই এবার অসম এনআরসি বাতিল করা হবে বলে ইঙ্গিত দিয়ে দিলেন দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

বৃহস্পতিবার রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে অমিত শাহ স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, এনআরসি এবার হবে গোটা দেশে। শুধু তাই নয় গোটা দেশের পাশাপাশি অসমেও নতুন করে হবে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি তালিকা। ইতিমধ্যেই সরকারের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে এনআরসির বিরুদ্ধে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হওয়া অসম পাবলিক ওয়ার্কসও। তাদের দাবি ছিল এনআরসির সমস্ত তথ্য নতুন করে যাচাই করা হোক। সেই দাবিতেই এবার শিলমোহর দিতে চলেছে সরকার। এদিকে শীর্ষ আদালতের নির্দেশে অসমে যে এনআরসি হয়েছিল তাতে অসম চুক্তি অনুযায়ী ১৯৭১ সালের ২৪ মার্চকে এনআরসি তৈরির ভিত্তিবর্ষ বলে ধরা হয়েছিল। কিন্তু গোটা দেশে যদি এনআরসি হয় সেক্ষেত্রে কোন তারিখকে ভিত্তিবর্ষ ভিত্তিবর্ষ হিসাবে ধরা হবে তা এখনও ঠিক হয়নি। সেই দিন ঠিক হলে, সেই দিনের প্রেক্ষিতে অসমেও তৈরি হবে নতুন এনআরসি লিস্ট।

যদিও সরকারের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে কেন্দ্রকে আক্রমণ করতে ছাড়েনি বিরোধীরা। তাদের দাবি, এনআরসিতে যে বিপুল সংখ্যক হিন্দু বাদ পড়েছে এবং তা নিয়ে যেভাবে প্রচার চলছে সেটাকে বাদ দিতেই এই ১৬০০ কোটি টাকার ক্ষতি স্বীকার করে নিতে উদ্যোগী হয়েছে মোদী সরকার। প্রসঙ্গত, অসমে এনআরসিতে বিপুল পরিমাণ হিন্দুর না বাদ পড়ায় তাঁর প্রভাব ভোটবাক্সে পড়েছে বলে কেন্দ্রীয় বিজেপিকে অভিযোগ করেছে অসম বিজেপি। ফলস্বরূপ সঙ্ঘপরিবারও বিষয়টি চাপ বাড়ায় বিজেপি সরকারের উপর। এমন পরিস্থিতিতেই অসমে নতুন করে এনআরসি শুরু হবে বলে দাবি করলেন অমিত শাহ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here