ডেস্ক: জেট এয়ারওয়েজ মন্দার মুখ দেখছে। সংস্থাকে বাঁচাতে প্রায় ১৫০০ কোটি টাকা দিতে উদ্যোগী হয়েছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। এই নিয়েই এবার সরব হলেন এআইএমআইএম প্রধান আসাউদ্দিন ওয়েইসি। তিনি বলেন, একদিকে জিএসটি’র জন্য ব্যবসায়ীরা মন্দার মুখ দেখছে, অন্যদিকে, প্রধানমন্ত্রী জেট এয়ারওয়েজকে টাকা দিতে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাঙ্কগুলিকে বাধ্য করছেন। ওয়েইসির মন্তব্য, সাধারণ মানুষের থেকে টাকা ছিনিয়ে নিয়ে এইভাবে কোনও সংস্থাকে দিতে পারে না সরকার। এটা মানুষের টাকা, প্রধানমন্ত্রীর বাবার সম্পত্তি নয়!

ওয়েইসি আরও বলেন, যে সংস্থা ডুবে যাচ্ছে তাকে বাঁচাতে বদ্ধপরিকর নরেন্দ্র মোদী। নোটবন্দি ও জিএসটির সিদ্ধান্তের ফলে ছোট ব্যবসায়ীরা মরতে বসেছে, এদিকে মোদী ভোট প্রচারের জন্য জামাকাপড় বিক্রির পন্থা নিয়েছেন। একইসঙ্গে, ডুবে যাওয়া সংস্থাকে টাকা দিতে উদ্যোগী হয়েছেন তিনি। এই ধরনের চৌকিদার দেশ কখনও দেখেনি। তিনি প্রশ্ন তোলেন, ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’র নাম করে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাঙ্কগুলিকে টাকা দিতে বাধ্য করা হচ্ছে। তবে যে সংস্থাগুলি বন্ধ পড়ে রয়েছে তাদের ঋণ দেওয়া হবে না কেন?

 

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগে ওয়েইসি মন্তব্য করেছিলেন, পুলওয়ামায় সিআরপিএফ জওয়ানদের আত্মঘাতী হামলায় হত্যা করা হল। পরবর্তী সময়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গরুর মাংসের বিরিয়ানি খেয়ে ঘুমোচ্ছিলেন। ওয়েইসির এই মন্তব্যে ঝড় ওঠে দেশজুড়ে। সোশ্যাল সাইটে বিজেপি সমর্থকরা বলতে শুরু করেন, মোদী গরু খান না। সেই প্রসঙ্গেই এদিন ওয়েইসি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভেজ খান না, নন ভেজ তা জানার প্রয়োজন নেই। গরুর মাংসে যদি সমস্যা থাকে, তবে তিনি ধোকলা খেয়েই ঘুমোচ্ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here