মহানগর ওয়েবডেস্ক: অসমে এনআরসির চূড়ান্ত তালিকা থেকে বাদ পড়েছে ১৯ লক্ষ মানুষের নাম। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে ফের একবার অসমের রাজনৈতিক পরিস্থিতির উত্তাপ কয়েক ডিগ্রি বেড়ে গিয়েছে। সেই তালিকায় যেমন ঠাঁই পায়নি প্রাক্তন সেনাকর্মীর নাম। তেমনই অসম বিধানসভার এক বিধায়কের নামও তালিকার বাইরে রয়েছে। অসমের অন্যতম বিরোধী রাজনৈতিক দল এআইইউডিএফের বিধায়ক অনন্ত কুমার মালোর নাম আসেনি এনআরসির চূড়ান্ত লিস্টে।

গত বছর ৩০ জুলাই প্রকাশ পেয়েছিল অসমের নাগরিকপঞ্জির খসড়া। যেখানে দেখা যায়, বাদ পড়েছে প্রায় ৪০ লক্ষ মানুষের নাম। এদিন সেই ৪০ লক্ষ মানুষের মধ্যে আরও ২১ লক্ষ ঠাঁই পেয়েছেন চূড়ান্ত তালিকায়। অন্যদিকে অসমের মোট ৩ কোটি ১১ লক্ষ মানুষকে চিহ্নিত করা হয়েছে স্বদেশি হিসেবে। তবে কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়ে দিয়েছে, যাদের নাম এনআরসি তালিকায় নেই তাদের এখনই বিদেশি বলে ঘোষণা করা যাবে না। এরপরও আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নতুন করে নাম তোলার আবেদন জানানো যাবে। এখনও ১২০ দিন সময় থাকছে তাদের কাছে। কিন্তু তারপর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কী পদক্ষেপ নেওয়া হবে সেই সিদ্ধান্ত এখনও চূড়ান্ত করেনি কেন্দ্র।

এরই মধ্যে অসম বিধানসভার বিধায়কের নামই বাদ পড়ে যাওয়ায় হতচকিত হয়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহল। অনন্ত কুমার মালোর নাম কেন তালিকায় ঠাঁই পেল না তা নিয়েও শুরু হয়েছে বিতর্ক। অসম সরকারের বিজেপি মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা এই এনআরসির তালিকা মানেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন। ফলে বিতর্কের জল আরও বহু দূর গড়াতে চলেছে তা চোখ বন্ধ রেখেই বলে দেওয়া যায়।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here