ডেস্ক: ঘর বাড়ি, প্রিয়জন সকলকে ভুলে কেবল দেশকে সুরক্ষা দেওয়াই ধর্ম তাদের। জাতি ধর্ম নির্বিশেষে তারাই দেশকে সুরক্ষিত রাখতে নিজেদের জীবন দিয়ে দেন, অথচ তারাই সুরক্ষিত নন। না, শত্রুপক্ষের কথা বলা হচ্ছেনা এখানে। মানসিক অবসাদ ও একাকিত্বই এমনভাবে গ্রাস করেছে তাদের যে আত্মঘাতী হচ্ছেন সেনাবাহিনীর জওয়ানেরা। সংখ্যাটা চমকে দেওয়ার মতো, গত ৬ বছরের আত্মঘাতী হয়েছেন ৭০০ জওয়ান।

চাঞ্চল্যকর তথ্যটি সংসদের স্ট্যান্ডিং কমিটিকে খোদ জানিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। সেই রিপোর্টে আত্মঘাতী হওয়ার প্রধান কারণ উল্লেখ করা হয়েছে, ‘স্থিতিশীলতার অভাব, একাকিত্ব এবং পারিবারিক সমস্যা। বিজেপি নেতা মুরলী মনোহর যোশীর নেতৃত্বাধীন একটি কমিটি সংসদে এই রিপোর্টটি পেশ করে। আত্মঘাতী হওয়ার থেকেও কেন্দ্রীয় সরকারের চিন্তা আরও বেশি বাড়িয়েছে স্বেচ্ছাবসরের খতিয়ান। রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে, প্রতি বছর সেনাবাহিনীর প্রায় ৯০০০ জওয়ান স্বেচ্ছাবসরের জন্য আবেদন করে থাকেন।

আত্মঘাতী হওয়া এবং স্বেচ্ছাবসর নেওয়ার তালিকায় সেনবাহিনীর বিএসএফ, সিআরপিএফ, আইটিবিপি, সিআইএসএফ এবং অসম রাইফেলসের জওয়ানরা রয়েছেন। আত্মঘাতী জওয়ানদের তালিকায় বিএসএফ সেনাদের নামই সবার উপরে উঠে এসেছে। সেনার এই শাখায় গত ৬ বছরের আত্মঘাতী হয়েছেন ৫২৯ জন জওয়ান। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের রিপোর্টে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে প্রতিরক্ষামন্ত্রকের কপালেও। সংসদীয় কমিটিকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনার আশ্বাস দিয়ে জানানো হয়েছে, জওয়ানদের ১০-১১ মাস একটানা ঘরের বাইরে থাকতে হয়। এরফলে পারিবারিক এবং বৈবাহিক সম্পর্কে সন্দেহ তৈরি হয়। পাল্টা-সন্দেহ থেকে অভিযোগ ওঠে। এই কারণেই আত্মহত্যা মুহুর্মুহু বাড়ছে সেনাবাহিনীর মধ্যে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here