ডেস্ক: গোটা দেশকে কাঁদিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেল ৫ টা ৫ মিনিটে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন সবার প্রিয় অটলজি। তাঁর মৃত্যু শোকে মুহ্যমান প্রত্যেকটি ভারতবাসী। গতকাল থেকে টানা জাতীয় শোক পালনের পাশাপাশি অর্ধনমিত রয়েছে তেরঙ্গাও। তাঁর মৃত্যুতে শোক জানানোর পাশাপাশি এদিন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের প্রচেষ্টায় উত্তরপ্রদেশের প্রত্যেকটি নদীতে ভাসানো হবে অটল বিহারী বাজপেয়ীর চিতাভষ্ম।

বৃহস্পতিবার অটলজির মৃত্যুর পর রাতেই তাঁর মরদেহ হাসপাতাল থেকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে ৬ নম্বর কৃষ্ণাণমার্গের বাসভবনে। শুক্রবার দলীয় নেতাদের শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের জন্য আজ সারাদিন তাঁর মরদেহ শায়িত রয়েছে বিজেপির বর্তমান সদরদপ্তরে। সেখানে একে একে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেছেন দেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে বিজেপির নেতা মন্ত্রী থেকে শুরু করে সমস্ত সদস্যরা। সময় যত গড়িয়েছে ভিড় ততই বেড়েছে বিজেপির সদর দপ্তরে। শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টে নাগাদ এই মহান নেতার শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হবে দিল্লির রাজঘাটে। আর তারপর উত্তরপ্রদেশের সমস্ত নদীতে বিসর্জন দেওয়া হবে অটলজির চিতাভস্ম।

এপ্রসঙ্গে প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী অটলজির প্রতি শোকবার্তায় উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেন, অটলজি ব্যক্তিস্বার্থের চেয়ে জাতীয় স্বার্থকে অনেক বেশি গুরুত্ব দিতেন। তিনি এমন একজন ব্যক্তিত্ব যার মাধ্যমে দেশে এসেছিল একটি রাজনৈতিক স্থায়িত্ব। তাই তাঁর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে উত্তরপ্রদেশের প্রতিটি নদীতে বিসর্জন দেওয়া হবে অটলজির চিতাভষ্ম।

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর গতকাল দিল্লির এইমস হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ী। তাঁর মৃত্যুর জেরে টানা ৭ দিন জাতীয় শোক পালনের পাশাপাশি শুক্রবার অর্ধ দিবস ছুটি ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। আজ তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে আসছেন ভারতের সমস্ত প্রতিবেশি দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here