uri like attack

Highlights

  • প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে ২৬ জানুয়ারি এই হামলার ছক কষা হয়েছে
  • ন্ত্রাসবাদী সংগঠন জৈইশ-ই-মহম্মদ ও হিজবুল মুজাহিদিন মিলে এই ধ্বংসলীলার ছক করেছে
  • গোয়েন্দা দফতরের এই রিপোর্ট হাতে আসার পর থেকেই সক্রিয় হয়ে উঠেছে উপত্যকার নিরাপত্তারক্ষীরা

 

মহানগর ওয়েবডেস্ক: জম্মু কাশ্মীরে ফের একবার সেনাবাহিনীর ক্যাম্পে হামলার ষড়যন্ত্র হিজবুল মুজাহিদিনের। সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে ২৬ জানুয়ারি এই হামলার ছক কষা হয়েছে। উরি হামলার কায়দায় ফের একবার আত্মঘাতী হামলার পরিকল্পনা করেছে পাকিস্তানি জঙ্গিরা। সন্ত্রাসবাদী সংগঠন জৈইশ-ই-মহম্মদ ও হিজবুল মুজাহিদিন মিলে এই ধ্বংসলীলার ছক করেছে।

প্রত্যেক বছরেই প্রজাতন্ত্র দিবস এবং স্বাধীনতা দিবসের সময় এই ধরনের পরিকল্পনা করে থাকে জঙ্গি সংগঠনগুলি। এবারও তার ব্যাতিক্রম হয়নি। উরির মতোই ফিদায়েঁ হামলা চালানো হয়ে পারে বলে জানিয়েছে গোয়েন্দা দফতর। সেটা ২৬ জানুয়ারির আগেও হতে পারে, পরেও হতে পারে। বিদেশি জঙ্গিদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে এই হামলা চালানো হতে পারে সেনা ছাউনিতে। গোয়েন্দা দফতরের এই রিপোর্ট হাতে আসার পর থেকেই সক্রিয় হয়ে উঠেছে উপত্যকার নিরাপত্তারক্ষীরা। নেওয়া হচ্ছে অতিরিক্ত সতর্কতা।

ইতিমধ্যেই এই হামলা চালানোর উদ্দেশে পাকিস্তানে বসে ৮ জঙ্গি বৈঠক সেরে ফেলেছে বলে খবর। মূলত কাশ্মীর নিয়ে বদলার মানসিকতাকে কাজে লাগিয়েই পাকিস্তান এই হামলার ছক কষেছে। তারা প্রচ্ছন্ন এক বার্তা দিতে চাইছে যে কাশ্মীরের পরিস্থিতি এখনও আগের মতোই রয়েছে। এই অবস্থায় কেন্দ্রের কাছে সব থেকে বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে এই ফিদায়েঁ হামলা আটকে জঙ্গিদের পরিকল্পনা ব্যর্থ করা।

এই হামলা চালানোর আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ আঙ্গিক রয়েছে। আগামী সময়ে জম্মু কাশ্মীরে সফর করতে চলেছেন কেন্দ্রীয় সরকারের ৩৬ মন্ত্রী। তাদের সফরের আগেই এই বৈঠক করে সরকারকেও রীতিমতো চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দিয়েছে জঙ্গিরা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here