FotoJet-61

নিজস্ব প্রতিবেদক, আসানসোল: বিরোধীদের কাছে চৌকিদার চোর৷ চৌকিদারই যে চোর ভোট যুদ্ধে দেশবাসীর কাছে বারে বারে সে কথা প্রমাণ করতে কার্যত কোনও কসুর করেননি কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ তাতে বিজয় মালিয়া, থেকে নীরব মোদীদের দেশ থেকে টাকা চুরি করে পালিয়ে যাওয়া নিয়েও এই চৌকিদার অর্থাত দেশের প্রধানমন্ত্রীকেই কাঠগলায় তুলেছেন রাহুল৷ সেই সুরে সুর মিলিয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অন্যান্য বিরোধীরাও৷

অন্যদিকে মোদীর বক্তব্য ছিল গোটা গান্ধী পরিবারই চোর৷ তবে রাহুলের গর্জনের কাছে কিছুটা হলেও কোণঠাসা হয়েছেন মোদী৷ রাহুল গান্ধী থেকে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, যখনই মোদীকে আক্রমণ করেছেন, তাদের মুখে একটাই কথা শোনা গিয়েছে ‘চৌকিদার চৌর হ্যায়৷’ রাহুলকেও বারে বারে বলতে শোনা গিয়েছে এরকম চৌকিদার আমরা চাই না৷ লোকসভা ভোটে উত্তরবঙ্গ সফরে বেরিয়েও ‘চৌকিদার ঝুটা হ্যায়, লুটেরা হ্যায়’ বলেও তোপ দেগেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

তবে এবার তারই প্রতিবাদ জানালেন বাবুল সুপ্রিয়৷ আসানসোলের মহিষিলায় নিজের বাসভবনের আশেপাশের ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’ লেখা সমস্ত ব্যানার লাঠি দিয়ে ছিঁড়ে ফেললেন বিদায়ী এই সাংসদ৷ মঙ্গলবার নিজের এলাকায় আশেপাশে এই ধরণের সমস্ত পোস্টার ছিড়ে ফেলেন তিনি৷ মোদীর এই পোস্টার ঘিরে বিতর্ক তৈরি হচ্ছিল৷ তারপরেই বাবুল সুপ্রিয়কে পোস্টারগুলি ছিড়েব ফেলতে দেখা যায়৷ আর একদিন পরেই লোকসভা নির্বাচন শুরু৷ তাঁর আগে বিদায়ী সাংসদের এলাকায় এরকম পোস্টার মানুষের মধ্যে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে, বিতর্ক আরও উস্কে দিতে পারে, তাই হয়তো এরকম কাণ্ড করতে দেখা গেলো আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রের এই বিজেপি প্রার্থীকে, এমনটাই মনে করছেন বিশেষজ্ঞ মহল৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here