FotoJet1306

ডেস্ক: চলতি লোকসভা ভোট রাজনৈতিক ময়দানে যতটা গুরুত্বপূর্ণ, সিলভার স্ক্রিনেও ততটা গুরুত্ব পাচ্ছে এই নির্বাচন। কারণ কিছুদিন আগেই নির্বাচন কমিশন স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিল নির্বাচন চলাকালীন কোনও প্রকারের বায়োপিক মুক্তি পাবে না। ঘটনার সূত্রপাত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বায়োপিক নিয়ে। কংগ্রেস-সহ একাধিক বিরোধীদলের অভিযোগে নির্বাচন কমিশন ‘পি এম নরেন্দ্র মোদী’র বায়োপিক মুক্তি স্থগিত করে দেন। যদিও সুপ্রিম কোর্ট দু’দিন আগেই কমিশনকে পরামর্শ দেন নির্বাচন কমিশন যেন ভেবেচিন্তে একবার সিনেমা দেখে তবেই মুক্তি বন্ধের নির্দেশ দেন। এদিকে বাংলাতেও চলছে টানাপোড়েন। দিল্লিতে মোদী বাংলাতে দিদি দু’জনের বায়োপিক নিয়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল মাঠে নেমে পড়েছেন।

ইতিমধ্যেই ‘পি এম নরেন্দ্র মোদী’র বায়োপিক যেহেতু ব্যান করেছে নির্বাচন তাই সিপিএম-বিজেপির দাবী অবিলম্বে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বায়োপিকও বন্ধ করতে হবে। যদিও এই সিনেমার নির্মাতা কিছুদিন আগেই নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছিল নির্বাচনের আচরণ বিধির পর মুক্তি পাবে ‘বাঘিনী’ অপরদিকে এখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সরাসরি দেখানো হয়নি। এই ছবি নিয়ে যাতে বিতর্ক না হয় তা নিশ্চিত করতে ছবিটিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম রাখা হয়েছে ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায়। দক্ষিণ কলকাতার নিম্নবিত্ত এক পরিবার থেকে অগ্নিকন্যা হয়ে ওঠার লড়াই। এবং সব শেষে জাতীয় রাজনীতিতে এক গুরুত্বপূর্ণ জায়গা অধিকার করে নেওয়া মমতার উত্থান পতনের ইতিহাস। এমনকি এই সিনেমার মুক্তি পিছিয়ে রাখা হয়েছে আগামী ৩ জুন। কিন্তু কিছুদিন আগেই সিপিএমের তরফ থেকে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করা হয় ভোটের মধ্যে যাতে এই সিনেমা মুক্তির আলো না দেখতে পায়,কারণ এটি নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করবে। এই একই পথে হেঁটে এবার নির্বাচন কমিশনে নালিশ ঠুকতে গিয়েছে বিজেপির প্রতিনিধি দল।

 

বিজেপির তরফ থেকে জয়প্রকাশ মজুমদার ও শিশির বাজোরিয়া এই বায়োপিক নিয়ে অভিযোগ জানিয়ে বলেছেন, ”আমরা ট্রেলারে দেখেছি মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীকে বড় করে দেখানোর জন্য ভোটের সময় বাজারে ছাড়া হচ্ছে এটি। এই বায়োপিকের কী ভবিষ্যত নির্বাচন কমিশনের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে জানতে চেয়েছি। তাঁরা আমাদের আশ্বস্ত করেছেন। কমিশন জানিয়েছে ইতিমধ্যেই এই ব্যাপারে তাঁরা আলোকপাত করেছেন। বাঘিনীর মুক্তি নিয়ে দিল্লির নির্বাচন কমিশনের কাছে ইতিমধ্যেই তাঁরা হলফনামা পাঠিয়েছেন বলে জানান তাঁরা।” এখন এটাই দেখার নির্বাচনের গেরোয় ‘পি এম নরেন্দ্র মোদী’র মতোই পায়ে শিকল পড়বে কী ‘বাঘিনী’র? নাকি ফের আদালত মুখো হতে হবে প্রযোজক ও পরিচালককে। সেটা সময় বলবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here