kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: উৎসবের আবহেও এবার ধর্ম নিয়ে কাটাছেঁড়া শুরু করল বজরং দল। এদিন বজরং দলের তরফে এক ফতোয়া জারি করে জানানো হয়েছে, হিন্দু ছাড়া ভিন্ন ধর্মাবলম্বি আর কেউ নবরাত্রির গরবা ও ডান্ডিয়া অনুষ্ঠানে ঢুকতে পারবে না। আর এই ফতোয়া জারি করেছেন বজরং দলের মিডিয়া কনভেনার এস কৈলাশ। তাঁর সাফ হুমকি, অহিন্দু কেউ যদি ডান্ডিয়া অনুষ্ঠানে ঢোকার চেষ্টা করে তবে খারাপ হবে। সেই কারণে আধার কার্ড দেখে সেইসব অনুষ্ঠানে যোগদানকারীদের প্রবেশের অনুমতি দেওয়ার নির্দেশ জারি করেছে তারা। ইতিমধ্যেই উদ্যোক্তাদের কাছে সেই নির্দেশিকা পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে বিশেষত গুজরাটিদের মধ্যে নবরাত্রির সময় এই ডান্ডিয়া খেলার প্রচলন রয়েছে। একই সঙ্গে গরবা নাচও হয়ে থাকে। এতদিন পর্যন্ত সকল ধর্মের মানুষরাই নির্দ্বিধায় এই অনুষ্ঠানে শামিল হয়ে এসেছেন। তবে আচমকা এই নিষেধাজ্ঞা কেন? বজরং দলের মুখপাত্র অবশ্য এর পিছনে কোনও কঠিন যুক্তি দেখাতে পারেননি। তাঁর কেবল অভিযোগ, অহিন্দুরা এই নাচের অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে অনেক সময়ই অশান্তি তৈরি করে থাকে। সেই কারণে তিনি বলেছেন, ‘অহিন্দু কোনও ব্যক্তিকে গরবা বা ডান্ডিয়া অনুষ্ঠানে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। উদ্যোক্তাদের আমরা আধার কার্ড বাধ্যতামূলক করতে বলেছি। অনুষ্ঠান যেখানে হবে তার গেটে আধার কার্ড দেখিয়েই ভেতরে প্রবেশের অনুমতি দিতে হবে। অনুষ্ঠানের নিরাপত্তার জন্য যাদের নিয়োগ করা হবে তারাও যেন হিন্দু হন সেটাও মাথায় রাখতে হবে।’

মূলত নরেন্দ্র মোদীর রাজ্য গুজরাটের ক্ষেত্রেই ফতোয়া কড়াভাবে জারি করা হয়েছে। কেননা, ওই রাজ্যেই সাধারণত ডান্ডিয়া খেলার প্রচলন মেয়েদের মধ্যে দেখা যায়। যদিও বর্তমানে পুরুষ-মহিলা নির্বিশেষে তা সমানভাবে জনপ্রিয়। আর এই অনুষ্ঠানে ঢুকেই অশান্তি করছে অহিন্দুরা, এমনটাই দাবি বজরং দলের। সেই কারণেই এই ফতোয়া জারি করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here