national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: লোকসভার পর বুধবার রাজ্যসভাতে দীর্ঘ ৭ ঘন্টার তুমুল বাদানুবাদের পর হেসে খেলে পাশ হয়ে গিয়েছে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। কিন্তু ধর্মের ভিত্তিতে পাশ হওয়া এই বিলের বিরোধিতায় ইতিমধ্যেই সরব হয়েছে বাংলাদেশ। এই বিল পাশের জেরেই প্রতিবাদ স্বরূপ এবার ৩ দিনের ভারত সফর বাতিল করলেন বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী আবদুল মোমেন। বৃহস্পতিবারই ভারতে আসার কথা ছিল মোমেনের। কিন্তু শেষ মুহূর্তে সেই সফর বাতিল করে দেন তিনি।

যদিও বাংলাদেশের তরফে এই সফর বাতিলের কারণ হিসাবে কোনও তথ্যই জানানো হয়নি। পাশাপাশি ভারতের তরফেও জানানো হয়েছে এই সফর বাতিলের কারণ হিসাবে বিলকে খাঁড়া করাটা উচিত নয়। তবে দুই দেশের সরকার যাই বলুক না কেন, কূটনৈতিক মহলের দাবি, বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রীর ভারত সফর বাতিলের পিছনে মূল কারণ বিলতো বটেই, রাজ্যসভায় বাংলাদেশ নিয়ে অমিত শাহের ভাষণও। প্রসঙ্গত, বুধবার রাজ্যসভাতে ক্যাব বিল নিয়ে বক্তব্য পেশের সময় অমিত শাহের দাবি ছিল, বাংলাদেশ, পাকিস্তান, আফগানিস্থানের সংখ্যালঘু হিন্দুদের উপর নৃশংস অত্যাচার চালানো হচ্ছে। অমিত শাহের এই বক্তব্যের কড়া প্রতিবাদ জানিয়ে মোমেন বলেন, ‘অমিত শাহকে যেই এই তথ্য দিয়ে থাকুক না কেন, এটা সঠিক নয়। বিভিন্ন ধর্মের বহু মানুষ আমাদের দেশে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেন। আমরা কাউকে ধর্মের ভিত্তিতে দেখি না।’

উল্লেখ্য, ক্যাব বিল পাশ হওয়ার পর ভারতের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে মোমেনের দাবি ছিল ‘ইতিহাস সাক্ষী। ভারত সর্বদা সহিষ্ণুতা এবং ধর্মনিরপেক্ষতায় বিশ্বাসী। কিন্তু সেই বিশ্বাসী এবার দুর্বল হয়ে যাবে।’ পাশাপাশি যে সকল দেশে সংখ্যালঘুদের ধর্মীয় কারণে অত্যাচারিত হতে হয়, তার মধ্যে বাংলাদেশের কথাও উল্লেখ করেছিলেন অমিত শাহ। যার জন্য তাঁকে রীতিমতো তুলোধনা করেছেন বিদেশমন্ত্রী। বলেছেন, ‘বাংলাদেশের মতো এমন খুব কম দেশই রয়েছে যেখানে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের সম্প্রীতি লক্ষ্য করতে পারা যায়। অমিত শাহ যদি বাংলাদেশে কয়েক মাস কাটিয়ে যান, তবে আমাদের দেশে ধর্মীয় সম্প্রীতির উদাহরণ দেখে যেতে পারবেন।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here