মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনা ভাইরাস রুখতে প্রত্যেক দেশের সরকারই ব্যাপকভাবে সচেষ্ট। কোনো দেশে যেমন লক ডাউনের ঘোষণা করা হয়েছে, তেমন কোথাও জনতা কার্ফুর প্রস্তুতি চলছে। ভিড় হয় এমন জায়গা এড়িয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন সব রাষ্ট্রনেতারা। বাকি সব দেশের মতো বাংলাদেশও করোনা সংক্রমণ রুখতে সচেষ্ট। সেই কারণে দেশের সবচেয়ে বড় যৌনপল্লীই বন্ধ করে দিল হাসিনা সরকার।

বাংলাদেশের রাজধানীর অদূরেই পদ্মার পাড়ে দৌলতদিয়া দেশের সর্ববৃহৎ যৌনপল্লী। এশিয়ার অন্যতম ব্যস্ত যৌনপল্লী এটি। সেই দৌলতদিয়া যৌনপল্লী আগামী ১৫ দিনের জন্য বন্ধ করে দিল স্থানীয় প্রশাসন। এই প্রসঙ্গে স্থানীয় পুলিশ প্রধান জানান, ‘করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে দৌলতদিয়া যৌনপল্লী আপাতত বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ৫ এপ্রিল পর্যন্ত সকল যৌনকর্মীদের বলা হয়েছে তারা যেন কোনও ব্যক্তিকে তাদের ঘরে প্রবেশ করতে না দেন।’

তবে এই সময়ে যাতে সেখানকার যৌনকর্মীরা যাতে কোনো সমস্যায় না পড়েন সেই জন্য তাদের কাছে ৩২ মেট্রিক টন খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হবে প্রশাসনের কাছ থেকে। এমনিতে মুসলিম দেশগুলিতে দেহব্যবসা বেআইনি। কিন্তু দৌলতদিয়া বহু শতক ধরে পদ্মাপাড়ে রয়েছে।

এই প্রসঙ্গে, ওই পল্লীর দেহব্যবসায়ীদের অন্যতম নেত্রী ঝুমুর বেগম জানান, ১৫০০ মহিলা এখানে থাকেন। প্রায় ৫০০০ মানুষ এখানে প্রতিদিন আসেন। আমরা প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করেছিলাম যাতে এই সময় আমাদের কিছু সাহায্য করা হয়। কারণ সরকারের অনুরোধে আমরা ব্যবসা বন্ধ করছি। ফলে সরকারও আমাদের সাহায্য করুক। এতদিন ব্যবসা বন্ধ থাকলে আমরা খাবো কী?’

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে এখনও পর্যন্ত ২০ জন করোনায় আক্রান্ত। মারা গিয়েছেন একজন। প্রায় ১৪ হাজার মানুষকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। ইংল্যান্ড বাদে বাকি সব ইউরোপীয় দেশের বিমান অবতরণের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে বাংলাদেশ সরকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here