ডেস্ক: বাংলার মাটিতে বিশ্বভারতীর সমাবর্তনের অনুষ্ঠানে যোগ দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সহ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু এদিনের অনুষ্ঠানে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু ছিলেন বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে এদিন বাংলাদেশ ভবনেরও উদ্বোধন করেন দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী। এই ঐতিহাসিক ভবন উদ্বোধনের পর হাসিনা বলেন, ”রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর দুই দেশের সঙ্গেই সংযুক্ত ছিলেন। কারণ, উভয় দেশেরই জাতীয় সঙ্গীত তাঁর লেখা। বাংলাদেশেই তিনি নিজের জীবনের অনেকটা সময় কাটিয়েছেন, সেই কারণেও ওনার উপর আমাদেরও অধিকার রয়েছে।”

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ছাড়াও এদিনের ভাষণে হাসিনার মুখে উঠে আসে বাংলাদেশে বসবাসকারী রোহিঙ্গাদের কথা। মানবিকতার খাতিরেই যে তাদের কক্সবাজারে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে একথাও জানান ওপার বাংলার প্রধানমন্ত্রী। হাসিনা বলেন, আমরা চাই যত সত্ত্বর সম্ভব তারা দেশে ফিরে যাক। রোহিঙ্গা ইস্যুতে ভারতের সাহায্যই যে বাংলাদেশ চায় সেই বিষয়টিও হাসিনার বক্তব্যে সাফ হয়ে যায়। মোদীর উদ্দেশ্যে হাসিনা বলেন, আমি চাইব যেন প্রধানমন্ত্রী মায়ানমারের সঙ্গে কথা বলুন যেন রোহিঙ্গাদের তারা ফেরত ডেকে নেয়।

বাংলাদেশ ভবনের উদ্বোধনের এই অনুষ্ঠানে মোদীও বলেন, বিগত কয়েক বছরে ভারত ও বাংলাদেশের সম্পর্ককে সোনার অধ্যায়ে লেখা যায়। এমন ইস্যু রয়েছে যার সমাধান অসম্ভব মনে হলেও দুই দেশের মৈত্রীর ফলে তা অবশেষে সম্ভব হয়েছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here