হিন্দু কমেন্টের জেরে সাত প্রদেশে নিষিদ্ধ হল জাকির নায়েকের ভাষণ

0
98
kolkata

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ইসলাম আলেম জাকির নায়েক নতুন করে বিপাকে পড়লেন৷  ভারতের এই ইসলাম প্রচারক এখন মালয়েশিয়ার রাজনৈতিক আশ্রয়ে আছেন৷ তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও সন্ত্রাসবাদকে মদত দেওয়ার অভিযোগ আছে৷ ২০১৭ সালের আগেই ভারত থেকে পালিয়েছেন জাকির৷ ভারত বার বার তাঁকে ফেরৎ চাইলেও মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাথাথি রাজি হননি৷ তবে জাকির নায়েকের কাছে মালয়েশিয়া আর ততটা নিরাপদ রইল না৷ বিতর্কিত মন্তব্যর জন্য খ্যাত নায়েক তাঁর মালয়েশিয়ার হিন্দুদের নিয়ে ভাষণের জন্য বেশ বিপাকে পড়েছেন৷ মালয়েশিয়ার হিন্দু মন্ত্রী এর আগে তাঁকে মালয়েশিয়া থেকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছিলেন৷ অবশেষে মালয়েশিয়ার হিন্দু অধ্যুষিত সাত প্রদেশে জাকিরের ভাষণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করল মাথাথি প্রশাসন৷

মালয়েশিয়ার হিন্দুরা তাঁদের দেশের প্রধানমন্ত্রীর চেয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রতি বেশি আনুগত্য৷ এমনটাই বক্তব্য ছিল জাকির নায়েকের৷ তাঁর এই কথায় মালয়েশিয়ার হিন্দু সমাজ প্রচণ্ড ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে৷ মালয়েশিয়ার দৈনিক মালয়েশিয়া স্টার-এর খবর অনুযায়ী মালেকা রাজ্যে নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে জাকিরের ভাষণ ও সভা। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অ্যাডলি জাহারির সাফ কথা,‘এমন কোনও জিনিস চলতে দেওয়া যায় না যা রাজ্যের সম্প্রীতি নষ্ট করে। তাই আমরা জাকির নায়েকের ভাষণের অনুমতি দিতে পারি না। তিনি কোনও সভাও করতে পারবেন না।’ উল্লেখ্য, মালেকা ছাড়াও এর আগে জেহার, সেনাগর, পেনাং, কেদা, পেরিল ও সারাওয়াকে জাকির তাঁর ভাষণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

‘মালয়েশিয়ার সংখ্যালঘু হিন্দুরা ভারতের সংখ্যালঘু মুলসিমদের থেকে অনেক নিরাপদে রয়েছে।’জাকির নায়েকের ওই এক বছর আগের করা মন্তব্যের পরই দেশজুড়ে তাঁর বিরুদ্ধে সরব হন একাধিক মন্ত্রী ও সংগঠন। তাঁকে দেশের বাইরে পাঠিয়ে দেওয়ারও দাবি ওঠে। এমনকি এও দাবি ওঠে জাকিরের সাম্মানিক নাগরিকত্বও কেড়ে নেওয়া হোক। তবে সেসব এখনও পর্যন্ত না করা হলেও তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত নেমেছে গোয়ন্দা সংস্থাগুলি। মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাথাথি  জাকিরের ওপরে প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ৷ তাঁর সাফ কথা,  জাকিরের বিরুদ্ধে আইন নিজের মতো ব্যবস্থা নেবে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here