ডেস্ক: পঞ্চায়েত ভোটে উত্তর ২৪ পরগণার বেশিরভাগ এলাকাতেই বিরোধীরা প্রার্থী দিতে না পারলেও। বার অ্যাসোসিয়েশানের নির্বাচনে তৃণমূলকে যোগ্য জবাব দিল বিরোধীরা। বসিরহাট ফৌজদারী আদালতের বার অ্যাসোসিয়েশানের নির্বাচনে ১১ টি আসনের মধ্যে ১১ টিতেই পরাজিত হল তৃণমূলের প্রার্থীরা। বিরোধীদের অভিযোগ পঞ্চায়েতের মতো এই ভোটেও তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের মাঠে নামিয়ে কাজ হাসিল করতে চেয়ছিল তৃণমূল। কিন্তু তাতে লাভ কিছু হয়নি, ব্যাপক পুলিশি নিরাপত্তায় বানচাল হয়ে যায় তৃণমূলের অভিসন্ধি।

ফের তৈরি হয়েছে দেশভাগের পরিস্থিতি! গণপিটুনির প্রসঙ্গে বিস্ফোরক বয়ান পিডিপি নেতার

জানা গিয়েছে শুক্রবার ছিল বসিরহাট ফৌজদারী আদালতের বার অ্যাসোসিয়েশানের নির্বাচন। পঞ্চায়েতের মতো হামলার আশঙ্কায়, কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয় ভোট গ্রহণ কেন্দ্র। সারাদিনের নির্বাচনী প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পর বিকেলের দিকে শুরু হয় ভোট গণনা। গণনার শুরু থেকেই এগিয়ে থাকে প্রগতিশীল প্রার্থীরা। রাতে গণনা শেষ হওয়ার পর দেখা যায় খালি হাতে ফিরতে হয়েছে তৃণমূলকে বার অ্যাসোসিয়েশানের ১১ টি আসনের ১১ টিতেই পরাজিত হয়েছে তৃণমূল। এদিকে বিপুর সংখ্যক ভোটে জয়লাভ করেছে প্রগতিশীল প্রার্থীরা।

মন্দিরের মধ্যেই ধর্ষণ অভিযোগের তির পুরোহিতের দিকে

বসিরহাটের মহকুমা দপ্তরে তৃণমূলের উপর ক্ষোভ ভালই রয়েছে আইনজীবীদের। পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে মহকুমা দপ্তরের আইনজীবীকে হেনস্থার অভিযোগ উঠেছিল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। যা নিয়ে ব্যাপক আন্দোলনে নামেন আইনজীবীরা। যদিও পরে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সেই ঘটনার পর এবার তৃণমূলকে যোগ্য জবাব দিল প্রগতিশীল প্রার্থীরা।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here