চ্যাম্পিয়নস লিগের শুরুতেই ডর্টমুন্ডের কাছে আটকে গেল বার্সা

0
536
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ১৯৯৭-৯৮ সালের পর ২০১৯-২০, দীর্ঘ ২১ বছর পর কোনও প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল বরুসিয়া ডর্টমুন্ড ও বার্সেলোনা। তাও আবার এবারে চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রথম দিনের ম্যাচেই। স্বাভাবিক ভাবেই এই ম্যাচ নিয়ে উত্তেজনাও ছিল চরমে, বিশেষ করে বার্সাকে নিয়ে। কিন্তু চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রথম ম্যাচেই জার্মান জায়ান্টের কাছে আটকে গেল কাতালান জায়ান্টরা। বরং বলা ভাল, হারতে হারতে বেঁচে গেল বার্সেলোনা।

ঘরের মাঠ ওয়েস্ট ফলেন স্টাডিওনে এদিন ৪-২-৩-১ ছকে দল সাজিয়েছিলেন বরুসিয়া কোচ ফাব্রে। লোন স্ট্রাইকার হিসেবে আলকাসারকে ব্যবহার করে পেছনে জুড়ে দিয়েছিলেন হ্যাজার্ড, রেউস ও স্যাঞ্চোকে। পাল্টা ৪-৩-৩ ছকে খেলে বার্সা। মেসিকে প্রথম একাদশে না রেখে আক্রমণভাগে গ্রিয়েজমান, সুয়ারেজ ও ফাতিতে নামান ভালভার্দে। কিন্তু তাতে লাভের লাভ কিছু হয়নি। বল পজিশনের নিরিখে ৫৯%-৪১% ব্যবধানে এগিয়ে থাকলেও আক্রমণে সেই ঝাঁজ ছিল না বার্সার। গোটা ম্যাচে বার্সার নেওয়া ৭টি গোলমুখী শটের মধ্যে মাত্র ১টি লক্ষ্যে ছিল। অন্যদিকে, বার্সা গোল লক্ষ্য করে ১৩টি শট নেয় ডর্টমুন্ড।

এদিন ম্যাচের শুরু থেকেই অনেক বেশি আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে শুরু করে বরুসিয়া। সেখানে মেসিহীন বার্সার আক্রমণে সেই ঝাঁজ ছিল না। বার্সা কিপার তের স্তেগান বেশ কয়েকটি ভাল সেভ করে দলের পতন রোধ করেন। প্রথমার্ধে সেইভাবে গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারেনি বার্সা। দ্বিতীয়ার্ধের ৫৫ মিনিটের মাথায় পেনাল্টি পায় বরুসিয়া। কিন্তু রেউসের স্পট কিক দুরন্ত দক্ষতায় সেভ করেন তের স্তেগান। এরপর গোল পেতে মরিয়া ভালভার্দে মেসিকেও নামান। যদিও তারপরও স্কোরবোর্ডে কোনও পরিবর্তন আসেনি। গোলশূন্য ভাবেই শেষ হয় মেসিদের প্রথম অ্যাওয়ে ম্যাচ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here