ডেস্ক: শতাব্দীর বিধ্বংসী বন্যার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের একবার কেরলবাসীর কাছে বিভীষিকাময় দিন আসতে চলেছে। সোমবার এমনটাই পূর্বাভাস জানালো আবহাওয়া দফতর। আরব সাগরের দক্ষিণ-পূর্ব অংশে একটি নিম্নচাপ তৈরি হওয়ার বিপুল সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। আগামী ৭-৮ অক্টোবর এই নিম্নচাপ আরও শক্তিশালী হয়ে উঠবে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। রাজ্যের মোকাবিলা বাহিনীগুলিকে ইতিমধ্যেই সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। মৎস্যজীবীদেরও সমুদ্রে যেতে মানা করা হয়েছে।

মে মাসে আসা বিধ্বংসী বন্যায় হাজার হাজার বাড়ি, ৪০ হাজার একরের ওপর জমি নষ্ট হয়ে যায় কেরলের। প্রায় ১৬০০০ কিমি রাস্তা এবং ১৩৪ টি ব্রিজ ভেঙ্গে পড়ে যায়। এই ধেয়ে আসা প্রথম বিধ্বংসী বন্যায় মানুষের মৃত্যুলীলা শুরু হয়েছিল, তা এখনও গোটা ভারতবর্ষ ভুলতে পারেনি। এই বিধ্বংসী বন্যার কবলে পড়ে সবথেকে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল অলপ্পুঝা, এনার্কুলাম এবং ত্রিশুর এলাকা। এই এলাকাগুলি থেকে জল নেমে গেলেও মহামারির আশঙ্কা প্রবল দেখা গিয়েছে। এমনকি র‍্যাট ফিভারে বহু মানুষ মারা যান।সরকারি খাতায় এখনও অবধি প্রায় ৪৮৩ জন মানুষ মারা গিয়েছেন এবং ১৪ জন নিখোঁজ হয়েছেন। ২০ হাজার কোটি টাকার সম্পত্তি নষ্ট হয়েছে এই বিধ্বংসী বন্যায়। এই বন্যায় বিধ্বস্ত বহু মানুষকে যুদ্ধ পরিস্থিতিতে উদ্ধার করে ত্রাণ শিবিরগুলিতে নিয়ে যাওয়া হয়। বন্যা কবলিত বহু মানুষকে আর্থিক সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসে রাজনৈতিক মহল ক্রিকেট এবং বলিউড।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here