kolkata news

Highlights

  • ইতিমধ্যেই কলকাতায় এসে পৌঁছেছেন দলের প্রথম সারির নেতারা
  • এই দুদিনের সফরে থাকছে না কোনও দলীয় কর্মসূচি
  • কেবলমাত্র প্রধানমন্ত্রী ভাষণ শোনার জন্যই রাজ্য নেতৃত্ব উপস্থিত থাকবে

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কলকাতা সফরকে কেন্দ্র তৎপরতা শুরু হয়েছে রাজ্য বিজেপির তরফে। ইতিমধ্যেই কলকাতায় এসে পৌঁছেছেন দলের প্রথম সারির নেতারা। যদিও এই সফরে কেবলমাত্র সরকারি অনুষ্ঠান গুলোতেই যোগদান করবেন প্রধানমন্ত্রী। এই দুদিনের সফরে থাকছে না কোনও দলীয় কর্মসূচি। শনিবার এ কথা স্পষ্ট করে দেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

এদিন দিলীপ ঘোষ জানান, ‘এই দু’দিনের সফরে সরকারি অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্যই আসছেন প্রধানমন্ত্রী। এই সফরে থাকছেনা কোনো দলীয় কর্মসূচি। রাজ্যের উদ্বাস্তুদের তরফ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জ্ঞাপনের জন্য যে ভাবনা চিন্তা করা হয়েছিল তার জন্য আলাদা করে প্রধানমন্ত্রীকে পরবর্তী সময়ে আমন্ত্রণ জানানো হবে। তবে ১২ তারিখের নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে প্রধানমন্ত্রী যে প্রোগ্রাম রয়েছে সেই প্রোগ্রামের উপস্থিত থাকবেন রাজ্যের নেতারা।’ যদিও এই প্রোগ্রামে কেবলমাত্র প্রধানমন্ত্রী ভাষণ শোনার জন্যই রাজ্য নেতৃত্ব উপস্থিত থাকবেন বলে এদিন স্পষ্ট করেন দিলীপ ঘোষ।

এদিকে ১২ তারিখে অনুষ্ঠানের আগেই আজ সকালে নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামের সভাস্থল পরিদর্শনে যান দিলীপ ঘোষ। এদিন তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মন্সুখভাই মান্ডিয়া। ১২ তারিখের জন্য উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে কিনা, এদিন তা খতিয়ে দেখতে যান রাজ্য বিজেপি সভাপতি। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর জন্য উপযুক্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থাটিও খতিয়ে দেখেন তিনি। তবে শুধুমাত্র নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা দেওয়া হয়নি রাজ্য বিজেপির তরফ থেকে।

প্রধানমন্ত্রীর সবকটি প্রোগ্রাম মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য যথাযথ প্রচার এর ব্যবস্থা করা হয়েছে দলের তরফ থেকে। এদিন রাজ্য বিজেপির তরফ থেকে জানানো হয়েছে প্রধানমন্ত্রী র দুদিনের সফরের সবকটি প্রোগ্রাম লাইভ দেখানো হবে রাজ্য বিজেপির তরফ থেকে। এই লাইভ দেখাযাবে ফেসবুক তথা ইউটিউব চ্যানেলেও। এর জন্য দেওয়া হয়েছে নির্দিষ্ট কিছু লিংক। ১১ তারিখের প্রোগ্রাম দেখা যাবে facebook.com/BJP4India, pscp.tv/BJP4India, youtube.com/BJP4India, bjplive.org লিংক গুলোয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here