kolkata news

নিজস্ব প্রতিবেদন: রবিবার টাটা স্টিল আয়োজিত কলকাতা ম্যারাথনে গড়া হল জোড়া ইভেন্ট রেকর্ড। দুই এলিট অ্যাথলিট লিওনার্ড বারসোটন (কেনিয়া) ও গুতেনি শোন (ইথিওপিয়া) যথাক্রমে পুরুষ ও মহিলাদের ২৫ কিলোমিটার দৌড়ে নয়া রেকর্ড গড়ে ফেললেন।

শীতের ভোরে গরম কম্বলের উষ্ণতার হাতছানিকে উপেক্ষা করেই এবারের কলকাতা ম্যারাথনে নাম লিখিয়েছিলেন রেকর্ড সংখ্যক ১৫,৪৪৫ জন। এর আগে কখনও কলকাতা ম্যারাথনে এত মানুষ অংশ নেননি। আর নেবেনই বা না কেন? এই টাটা স্টিল কলকাতা 25K তো এবার IAAF সিলভার লেভেল রোড রেস। বিশ্বের আর কোনও রোড ম্যারাথনের এই স্বীকৃতি নেই। এর আগে কলকাতা ম্যারাথন ছিল IAAF ব্রোঞ্জ লেভেল রোড রেস।

এবছর এক নতুন পথে এই ম্যারাথনের আয়োজন করা হয়েছিল। দৌড়ে প্রথম স্থানে শেষ করেন কেনিয়ার বারসোটন। ২৫ কিমি দৌড়তে তিনি সময় নেন ১ ঘণ্টা ১৩ মিনিট ০৫ সেকেন্ড। এর আগে এই রেকর্ড ছিল কেনেনিসা বেকেলের। তিনি দুই বছর আগে ১ ঘণ্টা ১৩ মিনিট ৪৫ সেকেন্ডে দৌড়ে নজির গড়েছিলেন। মেয়েদের মধ্যে প্রথম হন ইথিওপিয়ার গুতেনি শোন। তাঁর সময় ১ ঘণ্টা ২২ মিনিট ০৯ সেকেন্ড । এটা একটি ইভেন্ট রেকর্ড। আগে এই রেকর্ড ছিল দেগেতু আজিমেরাওয়ের। দৌড় শেষ করতে তিনি সময় নিয়েছিলেন ১ ঘন্টা ২৬ মিনিট ০১ সেকেন্ড।

দৌড়ের পর লিওনার্ড বলেন,

‘কেনেনিসা বেকেলের মতো একজন কিংবদন্তির রেকর্ড ভাঙতে পেরে আমি খুব উচ্ছ্বসিত। দুই সপ্তাহ আগে পর্যন্ত জানতাম না এখানে আসব কিনা। তাই এই জয় আরও তৃপ্তির। রেসটা বেশ শক্ত ছিল। প্রথম ২০ কিলোমিটার পর্যন্ত সবাই কাছাকাছি ছিলাম। শেষ পাঁচ কিলোমিটারে সেরাটা দিয়েছিলাম। এর জন্য অনেক কঠিন পরিশ্রম করেছি।’

গুতেনি আবার জানান,

‘এই রেসে প্রথম হতে পেরে খুব ভাল লাগছে। সেই সঙ্গে নয়া রেকর্ডও গড়েছি। কলকাতায় বেশ উষ্ণতা ছিল। ফলে শহরের রাস্তা দিয়ে দৌড়নো খুব কষ্টকর ছিল।’

অন্যদিকে, এই টিএসকে ২৫কে’তে এবার ভারতীয়দের মধ্যে দ্বিতীয় হয়েছেন বাংলার মেয়ে শ্যামলী সিং। বছর দুয়েক আগে ব্রেস্ট টিউমারে আক্রান্ত হয়েছিলেন মেদিনীপুরের এই কন্যা। অস্ত্রোপচারের পরে অবশ্যও ট্র্যাকে ফিরেই মুম্বই ফুল ম্যারাথনে দ্বিতীয় হন তিনি। শ্যামলী জানান,

‘মেদিনীপুরে আমার পরিবার চাষবাসের সঙ্গে যুক্ত। আমার স্বামী সন্তোষই আমায় কোচিং করায়। আমার ক্যান্সারের চিকিৎসার জন্যে আমি মুম্বই ম্যারাথনে অংশ নিয়েছিলাম। সেই সময় টাকার জন্য আমায় প্রথম তিনে শেষ করতেই হত।’

ছবি- তপেন্দ্র নাথ কুন্ডু

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here