kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া: সিইএসসি’র ‘ভুতুড়ে’ বিদ্যুৎ বিল নিয়ে এখন রীতিমতো আশঙ্কায় দিন কাটাচ্ছেন এক গ্রাহক। অনিতা ঘোষ নামে ওই গ্রাহকের বাড়ি হাওড়ার পদ্মকুমার রায়চৌধুরী ১ম বাই লেনে। তিনি মেয়েকে নিয়ে থাকেন। প্রতি মাসে তাঁর বিদ্যুৎ বিল আসে গড়ে ১০০ থেকে ২০০ টাকা। কিন্তু মে মাসের বিল হাতে পেয়ে তাঁর চক্ষু চড়কগাছ। বিদ্যুতের বিল এসেছে ১ লক্ষ ২১ হাজার ৯০ টাকা। যার ডিউ ডেট ৩০ জুন তারিখের। এই বিল হাতে পেয়েই অনিতাদেবী টেলিফোনে যোগাযোগ করেন সিইএসসি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে।

অনিতাদেবী জানান, সিইএসসি কর্তৃপক্ষ তাঁকে বলেছিল, তিন থেকে চার দিনের মধ্যে বিষয়টি ‘রেক্টিফাই’ করা হবে। এই ভুতুড়ে বিলের টাকা তাঁর পক্ষে মেটানো কোনও ভাবেই সম্ভব নয়। এদিকে, সিইএসসি সূত্রের খবর, অভিযোগ পেয়েই বিষয়টি দেখা হয়েছে। রিডিং সংক্রান্ত কিছু সমস্যার কারণেই এমন হয়েছে। গ্রাহকের বিল ‘রেক্টিফাই’ করে দেওয়া হবে। সমস্যা কিছু হবে না।

উল্লেখ্য, করোনার জন্য গত দু’তিন মাস বাড়ি বাড়ি গিয়ে মিটারের রিডিং নেওয়া হয়নি। গত বছরের এই সময়ের বিল ধরে গড় বিলা পাঠানো হয় গ্রাহকদের। তি বলে এই গ্রাহক সামান্য আলো-পাখা চালিয়ে যে বিল পেয়েছেন তা দেখে মাথা ঘুরে যাওয়ার জোগাড়। যাই হোক সিইএসসি কর্তৃপক্ষ বিষয়টি খতিয়ে দেখে ‘রেক্টিফাই’ করে দেওয়া হবে জানানোয় আশ্বস্ত অনিতাদেবী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here