Illustrative vial of coronavirus vaccine

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মানবদেহে পরীক্ষার প্রাথমিক পর্যায়ে বেশ আশানুরূপ কাজ করেছে করোনার ভ্যাকসিন। সম্প্রতি এমনটাই জানাল জার্মানির সংস্থা বায়োএনটেক ও আমেরিকার ফাইজার। দুটি সংস্থাই যৌথ ভাবে করোনার ভ্যাকসিন প্রস্তুত করে হিউম্যান ট্রায়াল শুরু করেছে।

করোনার ভ্যাকসিন বানাতে উঠে পড়ে লেগেছে বিশ্বের তাবড় তাবড় ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা। এখনও পর্যন্ত মোট ১৭টি ভ্যাকসিনের হিউম্যান ট্রায়াল শুরু হয়েছে। এর মধ্যে আরও তিনটি ভ্যাকসিন ( মডেরনা, ক্যানসিনো বায়োলজিক্স ও ইনোভিও ফার্মাসিউটিক্যালস) আগেই হিউম্যান ট্রায়ালের প্রাথমিক পর্যায়ে সফলতা পেয়েছে।

আর এই খবরের পরেই দুই সংস্থার শেয়ার মূল্য ঊর্ধ্বমুখী। ইতিমধ্যেই বায়োএনটেকের শেয়ার মূল্য ৮ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে। ফাইজারের শেয়ার মূল্য বেড়েছে ৪.৪ শতাংশ। অন্যদিকে, মোডেরনা বা নোভাভ্যাক্সের শেয়ার মূল্য কিছুটা কমে গিয়েছে।

বায়োএনটেক জানিয়েছে তাদের ভ্যাকসিন ২৪ জন মানুষের ওপর প্রয়োগ করা হয়েছিল। ২৮ দিন পর সাধারণ করোনা রোগীর তুলনায় অনেক বেশি এন্টিবডি তাদের শরীরে তৈরি হয়েছে। প্রতি ব্যক্তিকে তিন সপ্তাহের ব্যবধানে ওই ভ্যাকসিনের কড়া ডোজ দেওয়া হয়। এরপর দুই তৃতীয়াংশ যাদের হালকা জ্বর ছিল তাদের আরেকটা হালকা ডোজ দেওয়া হয়। প্রাথমিক এই ট্রায়ালের পর ফল আশানুরূপ বলেই জানিয়েছে দুই সংস্থা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here