kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বালুরঘাট: আজ কলকাতায় বিজেপি নেতা বিপ্লব মিত্র তৃণমূলে যোগদান করলেন। এই খবর এলাকায় আসতেই আবার সক্রিয় তৃণমূল কর্মীরা। আজ বিপ্লববাবু ও তার ভাই প্রশান্ত মিত্র বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করলেন। তার অনুগামীরা আতশবাজি ও পটকা কিনে রেখেছে  বিপ্লববাবুকে স্বাগত জানাতেl যোগদানের খবর প্রকাশ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই জেলা জুড়ে তৃণমূল কর্মীদের মধ্যে প্রবল উচ্ছ্বাস দেখা যায়l

প্রসঙ্গত, বিপ্লব মিত্র দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার তৃণমূলের জেলা সভাপতি ছিলেন দীর্ঘকালl গত লোকসভা নির্বাচনের পর তৃণমূল প্রার্থী অর্পিতা ঘোষ বিজেপি প্রার্থী সুকান্ত মজুমদারের কাছে হেরে যাওয়ার পর বিপ্লববাবুকে এই হারের জন্য দায়ী করে তাকে জেলা সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে দিয়ে অর্পিতা ঘোষকে জেলা সভাপতি করা হয়েছিলl

তৃণমূল শিবিরের অনেকের বক্তব্য, তিনি ও তার অনুগামীরা অভিমানে গত বছর ২৪ জুন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি লিপিকা রায়, পূর্ত ও পরিবহণ কর্মাধ্যক্ষ মফিজুদ্দিন মিয়াঁ-সহ জেলা পরিষদের দশ জন সদস্যকে নিয়ে তৃণমূল ছেড়ে দিল্লিতে বিজেপি শিবিরে নাম লেখানl জেলায় ফিরে এসে তিনি হুঙ্কার দিয়েছিলেন, দুর্গাপুজোর পর এই জেলা থেকে তৃণমূলকে নিশ্চিহ্ন করে দেবেন বলেl  যদিও সেটা তিনি করতে পারেননি, উল্টে তার ভাই প্রশান্ত মিত্র যিনি গঙ্গারামপুর পুরসভার পুরপিতা ছিলেন, তিনি আস্থা ভোটে পরাজিত হয়ে পুরপিতার পদও হারিয়েছিলেনl এর মধ্যে তৃণমূলের নতুন জেলা সভাপতি অর্পিতা ঘোষ বিক্ষুব্ধ তৃণমূল জেলা পরিষদ সদস্যদের সভাধিপতি সমেত সাত জনকে তৃণমূলে ফিরিয়ে এনে জেলা পরিষদ বিজেপির হাত থেকে ছিনিয়ে নেনl  তবে পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে বিজেপি সমানে সমানে টক্কর দিচ্ছে। তাই আগামী বিধানসভা নির্বাচনে যা ফাঁকফোকর রয়েছে, সেই সব মেরামত করতে তৎপর হন তৃণমূল রাজ্য নেতৃত্ব।

তাই বিধানসভাকে পাখির চোখ করে ২৩ জুলাই পুরো রাজ্য জুড়ে তৃণমূলের সাংগঠনিক রদবদল ঘটেl দক্ষিণ দিনাজপুরের তৃণমূল সভাপতি অর্পিতা ঘোষকে সরিয়ে দিয়ে জেলা সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয় গঙ্গারামপুরের বিধায়ক গৌতম দাসকে এবং চেয়ারম্যান করা হয় শঙ্কর চক্রবর্তীকে।  তৃণমূল সূত্রে জানা যায়, বিপ্লববাবু তৃণমূলে যোগদানের সঙ্গে সঙ্গে জেলায় যে সব নেতা পুনরায় তৃণমূলে ফিরতে পারেন তারা হলেন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদের প্রাক্তন পূর্ত ও পরিবহণ কর্মাধক্ষ্য তথা জেলা পরিষদের প্রাক্তন দলনেতা মফিজুদ্দিন মিয়াঁ। যিনি গতবছরের ২৪ জুন বিজেপিতে যোগদান করলেও পরবর্তীতে গত ১৩ ডিসেম্বর বিজেপি ছেড়ে নির্দল হিসাবেই ছিলেনl এছাড়াও যোগদান করতে পারেন প্রাক্তন কৃষি সেচ ও সমবায় কর্মাধক্ষ্য শংকর সরকার, মৎস ও প্রাণিসম্পদ কর্মাধক্ষ্য চিন্তামণি বিহা, জেলা পরিষদ সদস্য প্রতিভা মণ্ডল, গঙ্গারামপুর পুরসভার প্রাক্তন আরও চার জন প্রাক্তন কাউন্সিলারl

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here