kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে লাশ নিয়ে রাজনীতি করার অভিযোগ করল বিজেপি। আজ আবার একটি অডিয়ো টেপ প্রকাশ করে বিজেপি’র আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য দাবি করেন, কোচবিহারের শীতলকুচির ঘটনায় মৃতদেহ নিয়ে র‍্যালি করার কথা বলছেন তৃণমূল নেত্রী। একই অভিযোগ করেছেন বিজেপি সংসদ তথা চুঁচুড়া বিধানসভায় বিজেপির প্রার্থী লকেট চট্টোপাধ্যায়ও।

​পঞ্চম দফা ভোটের আগে এই অডিয়ো টেপ প্রকাশ করে বিজেপি বেকায়দায় ফেলার চেষ্টা করেছে তৃণমূলকে। ওই অডিয়ো প্রকাশ করে বিজেপি দাবি করেছে, তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথোপকথন হয়েছে জেলা তৃণমূল সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়ের। যদিও, এই অডিয়ো টেপের সত্যতা যাচাই করেনি ‘মহানগর’। ওই অডিয়ো টেপে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মৃতদেহগুলি এখনই পরিবারের হাতে না তুলে দিতে নির্দেশ দিচ্ছেন পার্থপ্রতিম রায়কে। বলছেন, মৃতদেহ নিয়ে র‍্যালি করতে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মাথা ঠান্ডা রেখে ভোট করতে নির্দেশ দেন পার্থপ্রতিমকে। একইসঙ্গে তিনি পার্থপ্রতিমকে বলেন, ভোট মিটে গেলে তারপর সবাইকে অ্যারেস্ট করা হবে। তারপর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানতে চান, কারা গুলি চালিয়েছে? উত্তরে পার্থপ্রতিম বলেন, সিআরপিএফ গুলি চালিয়েছে।

এই অডিয়ো টেপ সামনে এনে বিজেপি’র তরফে দাবি করা হয়েছে, লাশের রাজনীতি করছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দলের আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য আজ এই অডিয়ো টেপ প্রকাশ করেন। তার সঙ্গে ছিলেন দলের সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। দু’জনেই একসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিযুক্ত করে বলেন, কোচবিহারের ঘটনায় প্রমাণ হয়ে গিয়েছে তৃণমূল লাশের রাজনীতি করে।

ফোনে দু’জনের যা কথা হয়েছে, তা অবিকৃত রেখে এখানে তুলে দেওয়া হল।
মমতা: পার্থ
পার্থপ্রতিম: হ্যাঁ দিদি।
মমতা: মাথা ঠান্ডা করে ভোটটা কর তারপর এর বিচার আমরা করে দেব। সবকটাকে অ্যারেস্ট করাব, সবকটা সিআরপিএফকে। ডেড বডিগুলোকে এখন রেখে দাও। কালকে ডেড বডিগুলো নিয়ে র‍্যালি হবে। আজকে পরিবারগুলোকে বলবে কেউ ডেড বডি নেবে না।
পার্থপ্রতিম: ঠিক ঠিক।
মমতা: সব পড়ে থাকবে, আজকে আগে ভোটটা করে নাও মাথা ঠান্ডা করে।
পার্থপ্রতিম: একদম একদম দিদি।
মমতা: চালাকি হচ্ছে যাতে তুমি ভোটটা না করতে পারো, হেরে যাও।
পার্থপ্রতিম: একদম একদম আমি ফিল্ডে পড়ে আছি।
মমতা: এটা কারা করেছে? সিআরপিএফ?
পার্থপ্রতিম: সিআরপিএফ সিআরপিএফ।
মমতা: ওই লোকগুলো কারা?
পার্থপ্রতিম: আমাদেরই লোক আমাদেরই লোক।
মমতা: তুমি এক কাজ করো পুরো এফআইআর করবে। ল’ইয়ারকে দিয়ে, নিজের ইচ্ছামতো করবে না।
পার্থপ্রতিম: ওকে ওকে।
মমতা: এফআইআর বাড়ির লোক যেটা করবে সেটা আমি বলে দেব আফটার ইলেকশন।
পার্থপ্রতিম: ঠিক ঠিক।
মমতা: এখনই পুলিশ স্টেটমেন্ট নিতে গেলে করবে না। ভাল করে এফআইআর করতে হবে ল’ইয়ার-এর সাথে কনসাল্ট করে।
পার্থপ্রতিম: ঠিক আছে।
মমতা: যাতে কম্যান্ড জোন থেকে শুরু করে এসপি থেকে শুরু করে সবকটা ফাঁসে।
পার্থপ্রতিম: হ্যাঁ হ্যাঁ।
মমতা: এসপিকেও ফাঁসাতে হবে আইসিকেও ফাঁসাতে হবে।
পার্থপ্রতিম: ঠিক ঠিক।
মমতা: এখন মাথা ঠান্ডা করে ভোট করে দাও এজেন্টের স্ট্রেংথ দাও।
পার্থপ্রতিম: একদম।
মমতা: নিশ্চিন্তে কাজ করো।
পার্থপ্রতিম: সব বুথে এজেন্টরা যাতে থাকে।
মমতা: তুই দু’একবার করে যা আর গিয়ে বলে দে।
পার্থপ্রতিম: আমি যাচ্ছি প্রত্যেক জায়গায় যাচ্ছি।
মমতা: চারদিকে মানুষকে গিয়ে বলে দে চিন্তা করার কোনও কারণ নেই। ভোট যাতে না দিতে পারে, তার জন্য এরা এমন করছে।
পার্থপ্রতিম: একদম একদম দিদি কোনও চিন্তা নেই।
মমতা: ওরা এনপিআর করবে, ডিটেনশন ক্যাম্প করবে তাই এরকম করছে।
পার্থপ্রতিম: ঠিক আছে আমি দেখে নিচ্ছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here