ডেস্ক: জম্মু কাশ্মীরের অশান্ত পরিস্থিতির প্রভাব পড়ল এবার জাতীয় রাজনীতির বুকেও। উপত্যকায় পিডিপি সরকারের সঙ্গে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জোট ভাঙার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন বলে জানা গিয়েছে বেশ কিছু সংবাদ মাধ্যম সূত্রে। এদিন আচমকাই পিডিপির নেতা মন্ত্রীদের জরুরি বৈঠকে দিল্লিতে ডাকেন অমিত শাহ। জানা গিয়েছে, উপত্যকায় কেন্দ্রীয় সরকার অস্ত্রবিরতি চুক্তি তুলে নেওয়ায় সেই সিদ্ধান্ত মোটেই ভালভাবে নেন নি জম্মু কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী মেহেবুবা মুফতি।

শেষ পাওয়া খবর অনুসারে বিজেপির সঙ্গে পিডিপির বৈঠক শেষ হয়ে গিয়েছে। যে কোনও মুহূর্তে জোট ভাঙার সিদ্ধান্ত সরকারি ভাবে জানানো হতে পারে। সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে পিডিপির সঙ্গে বিজেপির মনোভাব না মেলার কারণেই জোট ভেঙে ফেলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

বিজেপির সদর দফতরে রুদ্ধদ্বার বৈঠকের পর সাংবাদিক সম্মেলন করে জোট ভাঙার কথা ঘোষণা করেন বিজেপি নেতা রাম মাধব। তিনি বলেন, গত ৩ বছর আমরা সরকারের অংশ ছিলাম। জম্মু কাশ্মীরের উন্নয়ন এবং সার্বিক উন্নতির জন্য যা যা প্রয়োজন নরেন্দ্র মোদী সরকার করেছে। কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয়নি। তাই বাধ্য হয়েই আমরা জোট ভেঙে বেরিয়ে আসছি। সরাসরি মুখে না বললেও, জোট ভাঙার এই সিদ্ধান্তের জন্য ঘুরিয়ে মেহেবুবা মুফতির সরকারকেই দায়ি করেন তিনি। এর ফলে মেহেবুবার সরকার যেমন একদিকে পতনের মুখে পড়ে গেল, তেমনই বিজেপির পক্ষ থেকে উপত্যকায় রাজ্যপালের শাসক জারি করারও দাবি তোলা হল।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here