kolkata news

নিজস্ব প্রতিনিধি : রবিবাসরীয় প্রচারে চলল গুলি। অন্তত এমনই অভিযোগ করেছেন নানুরের বিজেপি প্রার্থী তারকেশ্বর সাহা। অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই গুলি ছুঁড়েছে। অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। 

প্রচারে বাধা দেওয়ার অভিযোগ ছিলই। এবার কেবল বাধা নয়, নানুরের বিজেপি প্রার্থীর প্রচার রুখতে শূন্যে গুলি চালানোর অভিযোগ দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। স্থানীয় সূত্রে খবর, এদিন দুপুরে বোলপুরের বড়া সাওতা পঞ্চায়েতের বড়া গ্রামে প্রচারে যান তারকেশ্বর। তাঁর সঙ্গে ছিলেন কয়েকশো দলীয় কর্মী-সমর্থক। অভিযোগ ওই এলাকায় তাঁদের প্রচারে বাধা দেয় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। তারা বোমা-বন্দুক নিয়ে তেড়ে আসে। তার পরেও প্রচার করায় আচমকাই এক দুষ্কৃতী শূন্যে গুলি ছোঁড়ে বলে অভিযোগ। প্রথমে হকচকিয়ে গিয়ে ছত্রভঙ্গ হয়ে যান বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। পরে তাঁরাও রুখে দাঁড়ান। এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়। পরে এলাকায় প্রচার না করেই সদলে ফিরে যান তারকেশ্বর। আশপাশের এলাকায় অবশ্য প্রচার করেন বিজেপি প্রার্থী। গেরুয়া শিবিরের অভিযোগ, ঘটনার নেপথ্যে রয়েছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। তাঁদের দাবি, বিজেপিকে প্রচারে বাধা দিয়েছেন স্থানীয়রাই।

জানা গিয়েছে, এই পঞ্চায়েতের রাশ রয়েছে তৃণমূলের অন্যতম দাপুটে নেতা কাজল শেখের হাতে। বিজেপির অভিযোগ, কাজলের অনুগামীরাই এদিন বিজেপি প্রার্থীকে প্রচারে বাধা দিয়েছে। যদিও বিজেপির অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে কাজলের তরফে। শনিবারই বাহিনীর গুলিতে নিহত হন কোচবিহারের শীতলকুচির চারজন। তার রেশ এখনও মেলায়নি। তার মধ্যেই ফের গুলি চালনার ঘটনায় এলাকায় ছড়িয়েছে আতঙ্ক। ভোটের দিনও এমন কিছু হবে কিনা, তা নিয়ে উদ্বেগে সাধারণ মানুষ।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here