kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, পুরুলিয়া: বিজেপির মণ্ডল সভাপতিদের হাতে স্টিলের টিফিনবক্স তুলে দিয়ে নির্বাচনে অভিনব কর্মসূচি নিল পুরুলিয়া জেলা বিজেপি। এই টিফিন বক্স তুলে দেওয়ার উদ্দেশ্য হল এই বক্সে বাড়ির তৈরি খাবার নিয়ে দলের কাজে বেরিয়ে পড়বেন কার্য্যকর্তারা। বাড়ি থেকে বেরিয়ে বাইরের খাবার নয়, বাড়ির খাবার খেয়েই সারাদিন দলের কাজ করতে হবে। তাতে নিজের পরিবারকেও মনে রাখা যাবে। টিফিন বক্স হাতে দিয়ে দলের প্রতিটি মন্ডলের সভাপতিদের এরকমই নির্দেশ দেন বিজেপির পুরুলিয়া জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী।

পুরুলিয়া লোকসভা আসনে এখনও বিজেপি প্রার্থীর নাম ঘোষণা হয়নি। তার আগেই প্রচারে খামতি নেই দলের। বিভিন্ন আঙ্গিকে তারা জেলা জুড়ে প্রচার করে যাচ্ছেন। যখন অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলি জোরকদমে কোমর বেঁধে নিজেদের জয়ের জন্য ময়দানে নেমে পড়েছেন তখন পুরুলিয়া লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপির প্রার্থী কে হবেন সেটাই এখনো ঠিক হয়নি। যদিও জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী জানিয়েছেন, ‘প্রার্থীর নাম ঘোষণা হয়ে যাবে। সবুরে মোয়া ফলে।’ শনিবার দলের মন্ডল সভাপতিদের হাতে স্টিলের টিফিন বক্স তুলে দেওয়ার সময় বিদ্যাসাগরবাবু তাদের নির্দেশ দেন, ‘এই টিফিন বক্সে খাবার নিয়ে বেরোবেন। আর এই খাবার খেয়ে আপনারা সারাদিন দলের কাজ করবেন, প্রচার করবেন। আজ থেকে আপনারা এই টিফিন বক্সে ঘরের তৈরি মুড়ি, চিঁড়ে, রুটি যা হোক নিয়ে বেরোবেন। এটাই বিজেপির সংকল্প।’

 

এদিন বিদ্যাসাগরবাবু দলের কর্মীদের জেলায় তৃণমূলকে হারানোর সঙ্কল্পও করান। তিনি বলেন, ‘বিরোধীরা যাতে এক ইঞ্চিও জমি না পায় সেটাই মূল লক্ষ্য রাখতে হবে আমাদের। ভারতীয় জনতা পার্টি হচ্ছে উন্নয়নের প্রতীক। মোদীজি যদি পিছনে থাকে তাহলে ভারতবর্ষকে সুপার পাওয়ারে পরিণত করতে আমাদের বেশি সময় লাগবে না। পিছিয়ে পড়া জেলা পুরুলিয়াকেও এক নম্বর জেলায় পরিণত হতে বেশি সময় লাগবে না। তৃণমূলকে এই জেলায় হারাতেই হবে। তার জন্য মন্ডল সভাপতিদের দৃঢ় প্রতিজ্ঞ হতে হবে।’ ভোটবাজারে খুবই কাজের এমন একটি টিফিন বক্স হাতে পেয়ে মন্ডল সভাপতিরাও খুশি হয়ে জানান জেলা সভাপতির নির্দেশে এই টিফিন বক্সে বাড়ির তৈরি খাবার নিয়ে কাল থেকে দলের কাজে পুরো দমে নেমে পড়বেন। দেওয়ালে এতো বেশি পদ্ম ফুল আঁকবেন যে তা দেখে তৃণমূল আগেই বলবে, আমরা হেরে গেছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here